শেষ ম্যাচে পয়েন্ট নষ্ট করেছে মেসির বার্সেলোনা। আতলেতিকো মাদ্রিদের বিরুদ্ধে ড্র করেছে তারা। সেই সুবিধা নিতে মরিয়া ছিল রিয়াল মাদ্রিদ। বৃহস্পতিবার রাতে তারা মাঠে নেমেছিল চলতি লা-লিগায় ভালো ফর্মে থাকা গেতাফের বিরুদ্ধে। ম্যাচে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয় দুই পক্ষের মধ্যে। শেষ পর্যন্ত রিয়াল মাদ্রিদের রক্ষাকর্তা হয়ে ওঠেন তাদের অধিনায়ক। পেনাল্টি থেকে গোল করে রিয়ালকে তিন পয়েন্ট এনে দেন মাদ্রিদ অধিনায়ক সার্জিও র‍্যামোস। ১-০ ফলেই জিতে মাঠ ছাড়ে জিদানের ছেলেরা। লিগ টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে থাকা বার্সেলোনার থেকে ৪ পয়েন্টে এগিয়ে রইলেন র‍্যামোসরা। 

আরও পড়ুনঃগার্ড অফ অনার ও চার গোলের লজ্জার হার,ইপিএল চ্যাম্পিয়নদের উপহার দিল ম্যান সিটি

যদিও লিগ শীর্ষে থাকা রিয়াল খুব একটা ভালো খেলতে পারেনি। একেবারেই নিজেদের সেরা পারফরম্যান্সের ধারে কাছে ছিলেন না তারা। কিন্তু ফুটবল ফেরার প জিদান বলেই দিয়েছিলেন যে এখন তাদের লক্ষ্য বাকি ম্যাচগুলোর প্রত্যেকটিকে একটি ফাইনাল মনে করে নামা এবং জেতা। কাল ঠিক সেই কাজটাই করলো জিজুর শিষ্যরা। একেবারেই ভালো পারফরম্যান্স করতে না পারলেও, কাজের কাজটি করে তিন পয়েন্ট তুলে নিল তারা। 

আরও পড়ুনঃবিশ্বকাপের মাঝেই স্ত্রীর সঙ্গে সঙ্গম উপভোগ,আলমারীতে বউ লুকিয়ে রাখতেন সাকলিন মুস্তাক

আরও পড়ুনঃজর্জিনার রিং ফিঙ্গারে জ্বলজ্বল করছে হীরের আংটি,তাহলে কি আসন্ন রোনাল্ডোর বিয়ে

গেতাফের দুর্ভাগ্য যে সুযোগ থাকা সত্ত্বেও তাদের একেবারেই খালি হাতে ফিরতে হচ্ছে। এই নিয়ে ফুটবল ফেরার পর টানা ছটি ম্যাচে নিজেদের জয়ের ধারা অব্যাহত রাখলো রিয়াল। শুধুমাত্র গোল করে ম্যাচ জেতানো বাদ দিয়ে ডিফেন্সেও অসাধারণ খেলেন রিয়াল অধিনায়ক। ৩৩ মিনিটে ভারানে যখন বাধ্য হন মাঠ ছাড়তে তখন আচমকা মাঠে নামা তরুণ মিলিটাও-কে আত্মবিশ্বাস জুগিয়ে নিজের খেলাকে অন্য স্তরে তুলে নিয়ে যান তিনি। অসংখ্য বার বক্সে ভেসে আসা বিপজ্জনক বল ক্লিয়ার করে দলকে বিপদমুক্ত করেন তিনি। তার সাথে পেনাল্টি থেকে গোল করে দলকে তিন পয়েন্ট এনে দিতেও কোনও ভুল করেননি তিনি।