লুকাস ওকাম্পস ও ফার্নান্দোর করা গোলে ঘরের মাঠে কাঙ্খিত জয় পেয়ে গেল সেভিয়া। মঙ্গলবার থেকে করোনা আবহ কাটিয়ে স্পেনে ফিরলো ফুটবল। ঘরের মাঠে রিয়াল বেতিসের সাথে ম্যাচ দিয়ে অভিযান শুরু করলো সেভিয়া। নিজেদের মাঠে ২ গোলের ব্যাবধানে এই জয়ের ফলে লিগ টেবিলের তৃতীয় স্থানে নিজেদের জায়গা পাকা করলো তারা। পরের মরশুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের যোগ্যতা অর্জনের লড়াইয়ে এটি খুব গুরুত্বপূর্ণ জয় ছিল বলে মনে করছেন সেভিয়া ভক্তরা। 

আরও পড়ুনঃ২০২২ বিশ্বকাপের স্টেডিয়াম প্রস্তুতকারী সংস্থাকে ছাঁটাই,শ্রমিকদের মাইনে না দেওয়ার অভিযোগ

সাম্প্রতিক পরিস্থিতিতে লিগের প্রত্যাবর্তনের পর প্রথম ম্যাচটি অনেক দিক দিয়ে গুরুত্বপূর্ণ ছিল। মার্চ মাসের ১০ তারিখের পর প্রথমবার র‍্যামন স্যান্সেজ পিজুয়ান স্ট্যান্ডে ফিরেছিল ফুটবল কিন্তু সাধারণ সময়ের মতো মাঠে ছিলোনা কোনও দর্শক। তাদের উপস্থিতির অভাব পূরণ করার জন্যে দর্শকদের রেকর্ড করা আওয়াজ চালানো হয়েছিল স্টেডিয়ামে এবং সিজিআই-এর মাধ্যমে কৃত্রিম ভাবে ভরা স্টেডিয়ামের আমেজ ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করা হয়েছিল। যদিও সেই প্রক্রিয়া যে বিশাল সফল হয়েছে এমন দাবি কেউই করছেন না। 

আরও পড়ুনঃ জীবন থেকে ৬-৮ মাস ক্রিকেট হারিয়ে গেল,আক্ষেপ উমেশ যাদবের

আরও পড়ুনঃমাঠে দুরন্ত কিন্তু বিছানায় একেবারেই ফ্লপ মেসি,আর্জেন্টাইন মডেলের অভিযোগে তোলপার হয়েছিল ফুটবল বিশ্ব

ম্যাচে গোল আসতে দেরি হলেও শেষ পর্যন্ত সময়মতোই এসেছে। প্রথমার্ধে পোস্টে বল মারার পর দ্বিতীয়ার্ধে পেনাল্টি থেকে দলের এবং নিজের প্রথম গোলটি করেন লুকাস ওকাম্পস। ম্যাচের বয়স তখন ৫৬ মিনিট। এই গোলের ফলে তার পরপর পাঁচ ম্যাচে টানা গোল করার রেকর্ড হয়ে যায়, যা এর আগে সেভিয়ার হয়ে ছিল শুধুমাত্র আলভারো নেগ্রেদো-র। এরপর মাত্র ৬ মিনিটের মধ্যে সেভিয়ার দ্বিতীয় গোলটি আসে ফার্নান্দোর হেড থেকে। এই গোলের ব্যাপারেও ভূমিকা ছিল ওকাম্পস-এর।