নেশনস লিগের নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ইউক্রেনের বিরুদ্ধে মাঠে নেমেছিল সার্জিও র‍্যামোসরা। ইউক্রেনকে নিয়ে রীতিমতো ছিনিমিনি খেলে ৪-০ গোলে তাদের উড়িয়ে দেয় লুইস এনরিকের ছেলেরা। ম্যাচ জেতার পর স্প্যানিশ কোচ প্রশংসায় ভরিয়ে দেন তরুণ বার্সেলোনা তারকা আনসু ফাতিকে। স্পেনের প্রথম গোলটি আসে সার্জিও র‍্যামোসের পেনাল্টি থেকে যা আদায় করেন ফাতিই। তারপর নিজে প্রথমার্ধতেই দলের তৃতীয় এবং জাতীয় দলের হয়ে নিজের প্রথম গোলটি করেন। স্পেনের বাকি দুটি গোল করেন সার্জিও র‍্যামোস এবং ফেরান তোরেস। 

আরও পড়ুনঃএবার আইপিএলে করোনার থাবা দিল্লি ক্যাপিটালস দলে, আক্রান্ত এক জন

ফাতি ছাড়াও কাল মাঠে দুর্দান্ত ফর্মে ছিলেন স্প্যানিশ অধিনায়ক সার্জিও র‍্যামোস। পেনাল্টি থেকে গোল করা তার কাছে নিঃশ্বাস নেওয়ার মতোই স্বাভাবিক ব্যাপার। তা বাদে দলের দ্বিতীয় গোলটি করেন দুর্দান্ত হেডে ইউক্রেন গোলকিপার পিয়াতব কে সম্পূর্ণ পরাস্ত করে। ডিফেন্সের সাথে সাথে দলের প্রয়োজনে আক্রমণেও অংশগ্রহণ করেন তিনি। তার দুর্দান্ত অলরাউন্ড পারফরম্যান্সের জন্য কাল ম্যাচের সেরা তিনিই হয়েছেন। 

আরও পড়ুনঃআইপিএলের স্বপ্নসুন্দরী চিয়ারলিডার, করোনা এবার কাড়ল সেই গ্ল্যামার, জেনে নিন চিয়ারলিডার্সদের নিয়ে ১০টি তথ্য

আরও পড়ুনঃনিজের টপলেস ছবি শেয়ার করেছিলেন এই মহিলা খেলোয়ার, যা ঝড় তুলেছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়

স্পেনের জয়ের দিনে আবারও হতাশ করলো জোয়াকিম লো-এর জার্মানি। এখনও নেশনস লিগের ইতিহাসে একটিও ম্যাচ জিততে পারলেন না জার্মানরা। কাল সুইটজারল্যান্ডের বিরুদ্ধে ১-১ গোলে ড্র করে মাঠ ছাড়েন টিমো ওয়ার্নাররা। সুইটজারল্যান্ডের বাসেলে ম্যানচেস্টার সিটি তারকা ম্যানচেস্টার সিটির তারকা গুন্ডগানের গোলে এগিয়ে গিয়েছিল জার্মানি। কিন্তু তারপর দ্বিতীয়ার্ধে সিলভান উইডমারের গোলে সমতা ফেরায় সুইটজারল্যান্ড। ভক্তদের সাথে সাথে এই ফলে হতাশ জোয়াকিম লো নিজেও। তার মতে পারফরম্যান্সের অনেক উন্নতি দরকার। এই ম্যাচে তার জয় পাওয়ার যোগ্য পারফরম্যান্স করেননি।