এক বছরের জন্য পিছিয়ে যেতে চলেছে মহিলা ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ। ইংল্যান্ডের মাটিতে হওয়ার কথা ছিল এই মহিলা ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের জেরে এই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হচ্ছে ইউয়েফা। ড্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন থেকে এই সম্পর্কে একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়েছে। প্রতিযোগিতাটি হওয়ার কথা ১৬ টি দলকে নিয়ে। পুরুষদের ইউরো এবং টোকিও অলিম্পিক এক বছর পিছিয়ে যাওয়ায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। 

আরও পড়ুনঃকেন বাবার হাতে মার খাচ্ছেন যুজবেন্দ্র চাহল, দেখুন ভাইরাল ভিডিও

যদিও এখনও অবধি ইউয়েফার তরফ থেকে সরকারিভাবে কিছু ঘোষণা করা হয়নি। পুরো ব্যাপারটিই জানা গেছে ড্যানিশ ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের একটি বিবৃতি থেকে। ইউয়েফায় থাকা বিভিন্ন দেশের ৫৫ জন সদস্যর মধ্যে হওয়া ভিডিও কনফারেন্সে এই সিদ্ধান্তটি নেওয়া হয়েছে। মহিলা ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের যোগ্যতা অর্জন পর্বের সুচিও করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের দ্বারা প্রভাবিত হয়েছে। সরকারিভাবে ইউয়েফা জানিয়ে দিয়েছে জুন মাসে যে খেলাগুলি হওয়ার কথা ছিল তা আপাতত স্থগিত থাকছে। 

আরও পড়ুনঃকরোনা ভাইরাসের জের, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরে এই প্রথম পিছিয়ে গেল উইম্বলডন

আরও পড়ুনঃবাংলাদেশেও জারি করোনার থাবা, ২০০ গরীব পরিবারের দায়িত্ব নিলেন ক্রিকেটার মোসাদ্দেক হোসেন

২০২০ ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে ১ বছরের জন্য। ফলে এই নতুন সময়বিধি অনুসারে ঘরোয়া লিগ এবং কাপগুলি শেষ করার জন্য এখনও প্রচুর সময় রয়েছে ইউয়েফার কাছে। তাই এখনই ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতাগুলি নিয়েও চটজলদি কোনও সিদ্ধান্ত নিতে নারাজ ইউয়েফাও। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সাথে সাথে ইউরোপা লিগ এবং মহিলা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ নিয়েও কোনোরকম সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি এখনও।