ক্যাপ্টেন কুল নাম তাঁর, কিন্তু এই ৬ ঘটনায় মেজাজ হারিয়ে মাঠেই গালিগালাজ করেছিলেন ধোনি

First Published 25, Aug 2020, 5:13 PM

এমএস ধোনি ক্যাপ্টেন কুল নামেও পরিচিত। যে কোনও চাপে তিনি শান্ত থাকতে পারেন। কারণ, একটি সিদ্ধান্ত নেওয়া এবং বোঝা খুব গুরুত্বপূর্ণ। তবে, খেলার মাঠে এমন কিছু ঘটনও ঘটেছিল যখন ধোনি নিজের ক্রোধ সামলে রাখতে পারেননি। আজ আমরা আপনাদের এমন ৬টি ঘটনার কথা বলব যখন মাহি নিজের কুল ইমেজকে হারিয়ে ফেলে অপরকে গালি দেওয়া শুরু করেছিলেন বা বেজায় ধমক দিয়েছিলেন।
 

<p><strong>ডাগ আউট ছেড়ে মাঠে নেমে আম্পায়ারের সঙ্গে তর্ক</strong><br />
চেন্নাই সুপার কিংস আর রাজস্থান রয়্যালসের মধ্যে আইপিএল ২০১৯এর ২৫তম ম্যাচ চলাকালীন যখন চেন্নাইয়ের জয়ের জন্য ৩ বলে ৪ রানের প্রয়োজন ছিল সেই সময় বোলার বেন স্টোকস নো বল করেন, যাকে অ্যাম্পায়ার নো বল ডাকেনও, কিন্তু লেগ অ্যাম্পায়ারের মানা করার অ্যাম্পায়ার নিজের সিদ্ধান্ত বদলে দেন। যারপর ডাগ আউটে বসা ধোনি রাগে লাল হয়ে মাঠে নেমে আসেন আর অ্যাম্পায়ারদের সঙ্গে তর্ক করতে থাকেন। ধোনি অ্যাম্পায়ারের সিদ্ধান্ত নিয়ে খুশি ছিলেন না।<br />
&nbsp;</p>

ডাগ আউট ছেড়ে মাঠে নেমে আম্পায়ারের সঙ্গে তর্ক
চেন্নাই সুপার কিংস আর রাজস্থান রয়্যালসের মধ্যে আইপিএল ২০১৯এর ২৫তম ম্যাচ চলাকালীন যখন চেন্নাইয়ের জয়ের জন্য ৩ বলে ৪ রানের প্রয়োজন ছিল সেই সময় বোলার বেন স্টোকস নো বল করেন, যাকে অ্যাম্পায়ার নো বল ডাকেনও, কিন্তু লেগ অ্যাম্পায়ারের মানা করার অ্যাম্পায়ার নিজের সিদ্ধান্ত বদলে দেন। যারপর ডাগ আউটে বসা ধোনি রাগে লাল হয়ে মাঠে নেমে আসেন আর অ্যাম্পায়ারদের সঙ্গে তর্ক করতে থাকেন। ধোনি অ্যাম্পায়ারের সিদ্ধান্ত নিয়ে খুশি ছিলেন না।
 

<p><strong>কুলদীপ যাদবকে মাঠেই মারাত্মক ধমক</strong><br />
ভারতীয় স্পিন বোলার কুলদীপ যাদব বলেছেন যে তিনি যে উইকেট পান তার অর্ধেক কৃতিত্ব মহেন্দ্র সিং ধোনির হাতে যায়, কারণ তিনি উইকেটের পিছনে থেকে তাকে অনেক সাহায্য করেন এবং নির্দেশনা চালিয়ে যান। তবে গত এশিয়া কাপে কুলদীপ ধোনির পরামর্শ মেনে নিতে অস্বীকার করেছিলেন। এর পরে ধোনি রাগান্বিত হয়ে বললেন, "আমি এখানে পাগল? আমি ৩০০ ওয়ানডে খেলেছি। ... তবে কিছুক্ষণ পরে কুলদীপ একটি উইকেট পেয়ে ধোনকে শান্ত করলেন।</p>

কুলদীপ যাদবকে মাঠেই মারাত্মক ধমক
ভারতীয় স্পিন বোলার কুলদীপ যাদব বলেছেন যে তিনি যে উইকেট পান তার অর্ধেক কৃতিত্ব মহেন্দ্র সিং ধোনির হাতে যায়, কারণ তিনি উইকেটের পিছনে থেকে তাকে অনেক সাহায্য করেন এবং নির্দেশনা চালিয়ে যান। তবে গত এশিয়া কাপে কুলদীপ ধোনির পরামর্শ মেনে নিতে অস্বীকার করেছিলেন। এর পরে ধোনি রাগান্বিত হয়ে বললেন, "আমি এখানে পাগল? আমি ৩০০ ওয়ানডে খেলেছি। ... তবে কিছুক্ষণ পরে কুলদীপ একটি উইকেট পেয়ে ধোনকে শান্ত করলেন।

<p><strong>দীপক চাহারকে তিরস্কার</strong><br />
আইপিএল ২০৯ এ চেন্নাই সুপার কিংস আর কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের মধ্যে একটি ম্যাচ খেলা হচ্ছিল। এই ম্যাচে পাঞ্জাবের ইনিংসের ১৯ তম ওভারে ধোনির রাগের রূপ দেখতে পাওয়া গিয়েছিল। আসলে পাঞ্জাবের ইনিংসের ১৯তম ওভার চলছিল আর পাঞ্জাবের ২ ওভারে ৩৯ রানের আবশ্যকতা ছিল। মহেন্দ্র সিং ধোনি দীপক চাহারকে বল করতে ডাকেন। দীপক চাহার ইয়র্কার করার চেষ্টা করেন আর এই চেষ্টায় বল হাই ফুলটস হয়ে যায় যে বলে সরফরাজ খান থার্ডম্যানে একটি বাউন্ডারি মারেন। বল কোমরের উপর হওয়ার কারণে অ্যাম্পায়ার নো বল করেন। দীপক চাহারের ভুলে ধোনি রেগে যান, তিনি দৌরে দীপক চাহারের কাছে যান আর সকলের সামনে তিরস্কার করতে থাকেন।<br />
&nbsp;</p>

<p>&nbsp;</p>

দীপক চাহারকে তিরস্কার
আইপিএল ২০৯ এ চেন্নাই সুপার কিংস আর কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের মধ্যে একটি ম্যাচ খেলা হচ্ছিল। এই ম্যাচে পাঞ্জাবের ইনিংসের ১৯ তম ওভারে ধোনির রাগের রূপ দেখতে পাওয়া গিয়েছিল। আসলে পাঞ্জাবের ইনিংসের ১৯তম ওভার চলছিল আর পাঞ্জাবের ২ ওভারে ৩৯ রানের আবশ্যকতা ছিল। মহেন্দ্র সিং ধোনি দীপক চাহারকে বল করতে ডাকেন। দীপক চাহার ইয়র্কার করার চেষ্টা করেন আর এই চেষ্টায় বল হাই ফুলটস হয়ে যায় যে বলে সরফরাজ খান থার্ডম্যানে একটি বাউন্ডারি মারেন। বল কোমরের উপর হওয়ার কারণে অ্যাম্পায়ার নো বল করেন। দীপক চাহারের ভুলে ধোনি রেগে যান, তিনি দৌরে দীপক চাহারের কাছে যান আর সকলের সামনে তিরস্কার করতে থাকেন।
 

 

<p><strong>খালিল আহমেদকে গালিগালাজ</strong><br />
২০১৯এ অ্যাডিলেড ওয়ানডেতে যখন ভারতীয় দলের ইনিংসের ৪৪তম ওভারের পর মাঠে ড্রিংক্স চলছিল, তো তরুণ খেলোয়াড় খলিল আহমেদ আর যজুবেন্দ্র চহেল মাঠে ড্রিংক্স নিয়ে এসেছিলেন। সেই সময় খলিল আহমেদ ভুল করে পিচের মাঝে দৌড়েছিলেন। খলিল আহমেদকে পিচের উপর দৌড়তে দেখে ধোনি মেজাজ হারিয়ে ফেলেন আর তিনি খলিল আহমেদকে গালাগাল দিয়ে বসেন।<br />
&nbsp;</p>

খালিল আহমেদকে গালিগালাজ
২০১৯এ অ্যাডিলেড ওয়ানডেতে যখন ভারতীয় দলের ইনিংসের ৪৪তম ওভারের পর মাঠে ড্রিংক্স চলছিল, তো তরুণ খেলোয়াড় খলিল আহমেদ আর যজুবেন্দ্র চহেল মাঠে ড্রিংক্স নিয়ে এসেছিলেন। সেই সময় খলিল আহমেদ ভুল করে পিচের মাঝে দৌড়েছিলেন। খলিল আহমেদকে পিচের উপর দৌড়তে দেখে ধোনি মেজাজ হারিয়ে ফেলেন আর তিনি খলিল আহমেদকে গালাগাল দিয়ে বসেন।
 

<p><strong>মণীশ পাণ্ডেকে অশ্লীল মন্তব্য</strong><br />
২০১৮ সালে ভারত আর দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যে একটি টি-২০ ম্যাচ খেলা হয়েছিল। এই ম্যাচে এক সময় ধোনি আর মনীষ পান্ডে একসঙ্গে ক্রিজে ছিলেন। ব্যাটিং চলাকালীন মনীষ পান্ডে ননস্ট্রাইকারে ছিলেন আর তার মনোযোগ অন্য কোথাও ছিল, এর মধ্যে ধোনির রাগ হয় আর তিনি তরুণ খেলোয়াড় মনীষ পান্ডেকে রাগে গালাগাল করেন। আপনাদের জানিয়ে দিই যে এটা প্রথমবার নয় যখন ধোনি কোনো তরুণ খেলোয়াড়কে গালাগাল দিয়েছিলেন। এর আগেও এমএস ধোনি আইপিএলেও তরুণ খেলোয়াড়দের গালাগাল করেছিলেন।<br />
&nbsp;</p>

মণীশ পাণ্ডেকে অশ্লীল মন্তব্য
২০১৮ সালে ভারত আর দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যে একটি টি-২০ ম্যাচ খেলা হয়েছিল। এই ম্যাচে এক সময় ধোনি আর মনীষ পান্ডে একসঙ্গে ক্রিজে ছিলেন। ব্যাটিং চলাকালীন মনীষ পান্ডে ননস্ট্রাইকারে ছিলেন আর তার মনোযোগ অন্য কোথাও ছিল, এর মধ্যে ধোনির রাগ হয় আর তিনি তরুণ খেলোয়াড় মনীষ পান্ডেকে রাগে গালাগাল করেন। আপনাদের জানিয়ে দিই যে এটা প্রথমবার নয় যখন ধোনি কোনো তরুণ খেলোয়াড়কে গালাগাল দিয়েছিলেন। এর আগেও এমএস ধোনি আইপিএলেও তরুণ খেলোয়াড়দের গালাগাল করেছিলেন।
 

<p><strong>মুস্তাফিজুর রহমানকে মেরেছিলেন কনুই</strong><br />
ক্যাপ্টেন কুল নামে জনপ্রিয় এমএস ধোনি বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ২০১৫য় খেলা একটি ওয়ানডে ম্যাচ চলাকালীনও রেগে গিয়েছিলেন। আসলে এই ম্যাচে এমএস ধোনি যখন রান নেওয়ার চেষ্টা করছিলেন্ম তখন তার মাঝে ওই ম্যাচে নিজের ডেবিউ করা মুস্তাফিজুর রহমান চলে আসেন। এই ব্যাপারে এমএস ধোনি যথেষ্ট রেগে যান আর তিনি মুস্তাফিজুর রহমানকে কনুই মেরে বসেন। ধোনির এই রাগের কারণে আইসিসি তাকে ৭৫% জরিমানাও করে।</p>

মুস্তাফিজুর রহমানকে মেরেছিলেন কনুই
ক্যাপ্টেন কুল নামে জনপ্রিয় এমএস ধোনি বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ২০১৫য় খেলা একটি ওয়ানডে ম্যাচ চলাকালীনও রেগে গিয়েছিলেন। আসলে এই ম্যাচে এমএস ধোনি যখন রান নেওয়ার চেষ্টা করছিলেন্ম তখন তার মাঝে ওই ম্যাচে নিজের ডেবিউ করা মুস্তাফিজুর রহমান চলে আসেন। এই ব্যাপারে এমএস ধোনি যথেষ্ট রেগে যান আর তিনি মুস্তাফিজুর রহমানকে কনুই মেরে বসেন। ধোনির এই রাগের কারণে আইসিসি তাকে ৭৫% জরিমানাও করে।

loader