বিশ্বে নতুন বিপজ্জনক ভাইরাসের প্রবেশ, আশঙ্কা গবেষক মহলে

| Sep 27 2022, 01:55 PM IST

বিশ্বে নতুন বিপজ্জনক ভাইরাসের প্রবেশ, আশঙ্কা গবেষক মহলে

সংক্ষিপ্ত

করোনার সময়ই বিজ্ঞানীরা আরও একটি ভাইরাস সম্পর্কে জানতে পেরেছিলেন, যেটি করোনার মতোই বাদুড়, প্যাঙ্গোলিন, কুকুর এবং শূকরের মতো বন্য প্রাণীতেও দেখা দেয়। এর নাম খোস্তা-২। 
 

কোভিডের সংক্রমণ চিনে ২০১৯ সালের শেষ দিকে শুরু হয়েছিল এবং ২০২০ সালের প্রথম দিকে এটি সমগ্র বিশ্বকে গ্রাস করেছিল। পরিস্থিতি এমন দাঁড়ায় যে ২০২০ সালের মার্চ মাসে পুরো বিশ্ব লকডাউনের দিকে চলে যায়। করোনার সময়ই বিজ্ঞানীরা আরও একটি ভাইরাস সম্পর্কে জানতে পেরেছিলেন, যেটি করোনার মতোই বাদুড়, প্যাঙ্গোলিন, কুকুর এবং শূকরের মতো বন্য প্রাণীতেও দেখা দেয়। এর নাম খোস্তা-২। 

করোনা নিয়ে গবেষণার সময় এটি সম্পর্কে অনেক তথ্য বেরিয়ে এসেছিল, কিন্তু তখন বিজ্ঞানীরা এই ভাইরাসটিকে গুরুত্বের সঙ্গে নেননি কারণ এতে এমন কোন লক্ষণ পাওয়া যায়নি, যাতে বিশ্বাস করা যায় যে এটি মানুষকে প্রভাবিত করতে পারে। তাই সেদিকে খুব একটা নজর দেওয়া হয়নি। 
কিন্তু সম্প্রতি রাশিয়ার খোস্তা-২ নিয়ে করা এক গবেষণায় একটি ভয়ঙ্কর বিষয় সামনে এসেছে। কারণ এই গবেষণায় এটা পরিষ্কার হয়ে গেছে যে খোস্তা-২ ভাইরাস মানুষকে সংক্রমিত করতে পারে, তবে এটাও স্পষ্ট হয়ে গেছে যে এই ভাইরাস বন্ধে করোনার কোনও ভ্যাকসিন কার্যকর নয়। তবে খোস্তা-২ নিজেই করোনা পরিবারের একটি ভাইরাস এবং করোনার মতো এটিও প্রথমে শরীরের কোষে আক্রমণ করে। কিন্তু কোভিড ভ্যাকসিন এর সংক্রমণ ক্ষমতা এবং মারাত্মক আক্রমণে কার্যকর নয়। 

এই গবেষণাটি রাশিয়ায় করা হয়েছে এবং ক্লোজ প্যাথোজেনস জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে । এতে বলা হয়েছে যে, যারা ভ্যাকসিন পাননি তাদের জন্য তো বটেই সেই সঙ্গে, যারা কোভিড ভ্যাকসিন নিয়েছেন তাদের শরীরের জন্য ভাইরাসটি সমান ক্ষতিকর। তবে, এখন পর্যন্ত সার্স কোভিড-২ পরিবারের সমস্ত ভাইরাসের খবর পাওয়া গেছে, যেমন ডেল্টা, ওমিক্রন ইত্যাদি। ভ্যাকসিন এসবের ঝুঁকি কমিয়ে দিয়েছে। কিন্তু এটি খোস্তা-২ ভাইরাসের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়, যদিও এটি সার্স-কোভিড-২ পরিবারের একটি ভাইরাস। 

Subscribe to get breaking news alerts

কেন বিজ্ঞানীরা মনোযোগ দেননি?
২০২০ সালে প্রথমবারের মতো খোস্তা-২ ভাইরাস শনাক্ত করা হয়। এটি ছিল করোনা ভাইরাস সংক্রমণের সময় এবং একের পর এক নতুন ভাইরাস বেরিয়ে আসছিল। কিন্তু বিজ্ঞানীরা খোস্তা-২-এর দিকে মনোযোগ দেননি কারণ 
প্রথমে এতে কোনও উপসর্গ পাওয়া যায়নি যে এটি মানুষকে সংক্রমিত করতে পারে। দ্বিতীয়ত, খোস্তা-১ ভাইরাসও রয়েছে, যা মানুষকে সংক্রমিত করে না। তবে সর্বশেষ গবেষণায় এটা সম্পূর্ণ পরিষ্কার হয়ে গেছে যে খোস্তা-২ মানুষকে সংক্রমিত করতে পারে।

আরও পড়ুন- চুল অতিরিক্ত পাতলা, এভাবে যত্ন নিন নাহলে টাক হতে বেশি সময় লাগবে না

আরও পড়ুন- উৎসবের মরশুমে নিজেকে সুন্দর ও স্টাইলিশ দেখাতে অবশ্যই এই মেকআপ টিপসগুলি

আরও পড়ুন- পুজোয় আপনার সুবাসে মেতে উঠুক চারপাশ, ফ্ল্যাট ৫০ শতাংশ ছাড়ে মিলছে এই ব্র্যান্ডেড

খোস্তা-২ কিভাবে ছড়ায়?
খোস্তা-২ ভাইরাস বর্তমানে বাদুড়, প্যাঙ্গোলিন এবং কুকুরের মতো বন্য প্রাণীতে ছড়িয়ে পড়ছে। মানুষের মধ্যে খোস্তা-২ ভাইরাসের সংক্রমণ নিশ্চিত হয়েছে এমন কোনও ঘটনা পাওয়া যায়নি। কিন্তু গবেষণার সঙ্গে যুক্ত মাইকেল লেটকো বলছেন, এই ভাইরাস ভবিষ্যতে মহামারী আকার নিতে পারে। বিশেষ করে যদি এটি কোভিড ভাইরাসের সঙ্গে একসঙ্গে মানুষের কাছে পৌঁছায় তবে এটি অত্যন্ত মারাত্মক হতে পারে।

উদ্ধারের জন্য কি করা হচ্ছে?
বিজ্ঞানীরা ইতিমধ্যেই খোস্তা ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে ভ্যাকসিন তৈরি শুরু করেছেন। আসলে, শুধুমাত্র খোস্তা-২-কে কেন্দ্র করে ভ্যাকসিন তৈরি না করে, এখন বিজ্ঞানীরা এমন একটি ভ্যাকসিন তৈরি করছেন, যা SARS-CoV-2 পরিবার এবং এই জাতীয় সমস্ত ভাইরাস থেকে মানুষের জীবন বাঁচাতে পারে।