ঘুম থেকে উঠা থেকে দিনের শুরুটাই যেন হয় গ্রিন টি দিয়ে। শরীরের ওজন কমাতে হোক কিংবা স্বাস্থ্য সচেতনার জন্য নর্মাল চা, মশালা চা, আদা চা  ছেড়ে সকলেরই মন এখন গ্রিন টি-তে। মহামারির মধ্যে নিজেকে সুস্থ ও ফিট রাখাটাই সবচাইতে বড় চ্যালেঞ্জ। শরীরের নানান সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে চা পান করলেই অনেকটা  ফিট থাকবেন। কিন্তু কোন চা খেলে ফিট থাকবেন, কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা, জেনে নিন বিশদে।

মুম্বইয়ের বিখ্যাত পুষ্টিবিজ রুজুতা দিবাকরের মতে, গ্রিন টি-এর থেকে চিরাচরিত মশালা চা শরীরের জন্য  বেশি উপকারী। কারণ তার মতে, শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট গ্রিন-টির থেকে মশলা টি-তে বেশি রয়েছে। যারা গ্রিন টি বা গ্রিন কফি বেছে নিয়েছেন তাদের জন্যও তিনি বলেছেন, দেশি চা অনেক বেশি স্বাস্থ্যকর। জেনে নিন কোন চায়ের কী উপকারিতা রয়েছে।

মশলা চা

মশলা চা পানীয় হিসেবে অত্যন্ত জনপ্রিয়। নানা রকমের মশলা মিশিয়ে এই চা প্রস্তুত করা হয়। সমস্ত প্রাকৃতিক উপাদান যেমন আদা, দারুচিনি, লবঙ্গ, গোলমরিচ, এবং তুলসীপাতা মিশিয়ে  এই চা প্রস্তুত করা হয়। সর্দি, কাশি কমাতেও এই চা খুবই উপকারী। তেমনই  শরীরকে বাঁচাতে সাহায্য করবে এই চা।


গ্রিন টি

গ্রিন টি এখন কমবেশি প্রত্যেকেই পান করেন।  গ্রিন টি-তে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট থাকে। যা হজমে সাহায্য করে এবং ওজন কমাতেও এর জুড়ি মেলা ভার। সকালে ও বিকালে দুইবার করে এই চা পান করুন। গ্রিন টি খেলে শরীরের রক্ত পরিষ্কার হয়, এর পাশাপশি হজম শক্তিও বাড়ে।

 
লেবু, আদা, মধু দিয়ে তৈরি চা

শরীরের জন্য আদা অত্যন্ত ভাল একটি উপাদান। আদা খেলে জমে থাকা কফ, এবং রক্ত জমার হাত থেকেও মুক্তি পাওয়া যায়।  মধু কাশি কমাতে সাহায্য করে। আর লেবুতে থাকে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, যা ইমিউনিটি বাড়াতে সাহায্য করে। সেই কারণে আদা, লেবু, মধু সহযোগে চা পান করুন। এতে আপনার ফুসফুস যেমন ভাল থাকবে তার পাশাপাশি মনও সতেজ থাকবে।


হলুদ-আদা চা

হলুদ, আদা দিয়ে ও চা বানিয়ে খেতে পারেন। হঠাৎ করে শরীর খারাপ লাগলে বা কাশি হলে অনায়াসেই খেতে পারেন এই চা।