Asianet News BanglaAsianet News Bangla

মস্তিষ্ক তীক্ষ্ণ করার সহজ উপায়, সন্তানের মস্তিষ্ক তীক্ষ্ণ করতে অভ্যাস করান এগুলি

আমাদের মস্তিষ্ককে প্রতিনিয়ত সক্রিয় এবং তীক্ষ্ণ করতে আমরা এমন কিছু কাজ করতে পারি, যেগুলো খুবই সহজ, একেবারে বিনামূল্যে এবং এর উপকারিতা হাজার হাজার।
 

Simple ways to sharpen the brain you should know this BDD
Author
First Published Sep 5, 2022, 2:23 PM IST

আমাদের জন্মের পর থেকে মৃত্যু পর্যন্ত আমাদের মস্তিষ্ক সর্বদা কাজ করে। আমরা যখন ঘুমাচ্ছি তখনও এটি কাজ করে। এই কারণেই আমরা ঘুমের মধ্যে স্বপ্ন দেখি। আমাদের মস্তিষ্ককে প্রতিনিয়ত সক্রিয় এবং তীক্ষ্ণ করতে আমরা এমন কিছু কাজ করতে পারি, যেগুলো খুবই সহজ, একেবারে বিনামূল্যে এবং এর উপকারিতা হাজার হাজার।

আপনার মস্তিষ্ক তীক্ষ্ণ করার উপায়-
আপনার মস্তিষ্ককে তীক্ষ্ণ করার জন্য আপনি যে ব্যবস্থাগুলি গ্রহণ করতে পারেন এবং কীভাবে এই ব্যবস্থাগুলি আপনার মস্তিষ্কে কাজ করে সে সম্পর্কে জানুন, তার তথ্য নীচে দেওয়া হল।
ধ্যান করুন
ব্যায়াম করা
 উন্নত ডায়েট
বাম হাতের ব্যবহার বাড়ান
টেট্রিস খেলা
ভালো ঘুম
সকালে ঘুম থেকে ওঠা

এই প্রতিকার কিভাবে কাজ করে?
এখানে আপনাকে যে ব্যবস্থাগুলি দেওয়া হয়েছে, সেগুলি সমস্ত মস্তিষ্ককে বিভিন্ন উপায়ে প্রভাবিত করে এবং এর বিভিন্ন অংশকে সক্রিয় থাকতে সাহায্য করে। এই সমস্ত বিষয়ের উপর বিস্তারিতভাবে বিভিন্ন বইতে ব্যাখা করা রয়েছে। সবকিছু বলা সম্ভব নয় তবে মস্তিষ্কের উপর করা বিভিন্ন গবেষণায় এই সমস্ত ব্যবস্থা কার্যকর প্রমাণিত হয়েছে।
১) ধ্যান- 
মেডিটেশন হল মস্তিষ্ককে সক্রিয় ও তীক্ষ্ণ রাখার একটি বহু পুরনো প্রতিকার। আমাদের ঋষি ও জ্ঞানীরা সর্বদা ধ্যান করতেন। এই কারণেই তিনি গণনায় অত্যন্ত পারদর্শী ছিলেন এবং বড় বড় লেখা মৌখিকভাবে মনে রাখতেন। যদি আমরা বিজ্ঞানের ভিত্তিতে কথা বলি, তাহলে ধ্যানের মাধ্যমে মস্তিষ্ক ভালো পরিমাণে নিউরন তৈরি করতে সক্ষম হয়।

২) জগিং-
জগিং শরীরকে নানাভাবে প্রভাবিত করে। এটি মস্তিষ্ককে জড়িত করার পাশাপাশি পুরো শরীরকে একই সঙ্গে সচল রাখে। এটির সঙ্গে একটি দ্রুত হাঁটুন এবং দড়ি লাফুন। এই সমস্ত শারীরিক কার্যকলাপ শরীরকে শক্তিশালী এবং মস্তিষ্ককে তীক্ষ্ণ করে তোলে।

৩) ডায়েট-
মস্তিষ্ককে তীক্ষ্ণ রাখতে সবসময় মাথায় রাখুন সঠিক পরিমাণে প্রোটিন এবং ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড আপনার খাবারে। সঙ্গে ভিটামিন-ডি ও ক্যালসিয়াম। মস্তিষ্ক সুস্থ থাকতে এবং সঠিকভাবে কাজ করার জন্য এই সমস্ত জিনিসগুলি প্রয়োজনীয়।

৪) বাম হাতের ব্যবহার-
আমরা সবাই আমাদের বেশিরভাগ কাজ করতে ডান হাত বেশি ব্যবহার করি। কিন্তু অনেক গবেষণায় এটা প্রমাণিত হয়েছে যে, যারা বাম হাতের পাশাপাশি ডান হাত সমানভাবে ব্যবহার করেন, তাদের মস্তিষ্ক অন্য মানুষের চেয়ে বেশি তীক্ষ্ণ এবং স্মার্ট সিদ্ধান্ত নেয়।

৫) টেট্রিস গেম-
আপনি যখন টেট্রিস খেলেন, ব্লক যোগ করার খেলা, এটি মস্তিষ্কে উপস্থিত ধূসর পদার্থকে বাড়িয়ে দেয়। এই গ্রে ম্যাটার জিনিস মনে রাখতে সাহায্য করে। এভাবে ব্লক খেলে স্মৃতিশক্তি বাড়ে এবং ভালো স্মৃতিশক্তি ভালো সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করে।

৬) একটি ছোট ন্যাপ-
যখনই আপনি দিনের বেলা ক্লান্ত বোধ করেন, আপনাকে অবশ্যই ১৫ থেকে ২০ মিনিটের ঘুমোতে হবে। এটি স্মৃতিশক্তিও উন্নত করে এবং একজন ব্যক্তির তুলনামূলক অধ্যয়ন করার ক্ষমতা বাড়ায়। অর্থাৎ, যখনই আপনাকে একটি স্মার্ট এবং সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে হবে, প্রথমে আপনাকে পরিস্থিতি যাচাই করতে হবে যে কী করা সঠিক হবে। এটাই গণনা শক্তি, দিনের বেলা ঘুমানোর অভ্যাস এই শক্তি বাড়াতে সাহায্য করে।

আরও পড়ুন- কয়েক মাসের মধ্যেই বাজারে আসবে জরায়ুমুখের ক্যান্সারের ভ্যাকসিন, জেনে নিন দাম ও ওষুধ

আরও পড়ুন- পেটে ক্যান্সার হলে প্রথম দিকের এই লক্ষণগুলি দেখা যায়, জেনে নিন এই রোগের কারণ

আরও পড়ুন- এই ভুলগুলো মেটাবলিজম রেট কম করে সেগুলো এড়িয়ে চলার চেষ্টা করুন

৭) তাড়াতাড়ি ঘুম থেকে উঠা-
সকালে বা সূর্যোদয়ের আগে ঘুম থেকে ওঠার অভ্যাস করুন। এই দুটি সময়ই দিন শুরু করার জন্য সেরা। এই সময় ঘুম থেকে ওঠার ফলে মস্তিষ্কে হ্যাপি হরমোন ও বুদ্ধিমত্তার হরমোনের ক্ষরণ স্বাভাবিকভাবেই বেড়ে যায়। তাই সকালে ঘুম থেকে ওঠা আপনাকে আরও শান্ত, বুদ্ধিমান এবং সুখী করে তোলে। এছাড়াও আপনাকে স্ট্রেস থেকে দূরে রাখে।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios