দ্রুততার সঙ্গে এই দেশে টিকা দেওয়া হচ্ছে বলে দাবি করেছেন কেন্দ্রীয় সরকার। বিশ্বের দ্রুততম টিকা প্রদানের দেশগুলির মধ্যে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ভারত। প্রথম স্থানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। ৫৩ দিনে ভারতে  ২৫.৬ মিলিয়ন বা আড়াই কোটিরও বেশি মানুষকে টিকা প্রদান করা হয়েছে। গত ১৬ জানুয়ারি থেকে এই দেশে টিকা প্রদানের কর্মসূচি শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে টিকা প্রদানের কাজে গতি আনতে একাধিক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে। এক নজরে বিশ্ব তালিকায় ভারতের স্থান দেখে নিন। 


প্রথম দফায় শুরুমাত্র স্বাস্থ্যকর্মী ও ফ্রন্টলাইন করোনা যোদ্ধাদের টিকা প্রদান করা হয়েছিল। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া তথ্যা অনুযায়ী প্রথম দিনেই ১ লক্ষেরও বেশ মানুষকে টিকা দেওয়া হয়েছে। দ্বিতীয় দফায় টিকা দেওয়া হচ্ছে দেশের বয়স্ক নাগরিক ও দীর্ঘ দিন ধরে অসুস্থ থাকা ব্যক্তি বা কোমরবিডিড রোগিদের। দ্বিতীয় দফায় টিকা দেওয়া হচ্ছে গত  পয়লা মার্চ থেকে। এই পর্বে সাধারণ নাগরিকদের পাশাপাশি টিকা গ্রহণ করেছেন দেশের প্রথম সারির রাজনৈতিক ব্যক্তিরা। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, লালকৃষ্ণ আডবানি যেমন টিকা নিয়েছেন তেমনই সস্ত্রিক রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দও টিকা নিয়েছেন। টিকা গ্রহণ করেছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় ও তাঁর স্ত্রী।

নন্দীগ্রামে কতটা কার্যকর হবে শুভেন্দু 'ফ্যাক্টর', মমতা মিথ কি ভাঙতে পারবেন বিজেপি নেতা .

মমতাকে বরফ দেওয়াতেই কি প্রসন্ন হয়েছিল ভাগ্য়লক্ষ্মী, কী বলছেন নন্দীগ্রামের নিমাই মাইতি ...

দেশের মানুষ উৎসহের সঙ্গে টিকা নিচ্ছেন। দেশে এখনও পর্যন্ত অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রোজেনেকার তৈরি কোভিশিল্ড ও ভারত বায়োটেকের তৈরি কোভ্যাক্সিন টিকা হিসেবে দেওয়া হচ্ছে। অনুমোদন পাওয়ার অপেক্ষার রয়েছে আরও বেশ কয়েকটি প্রতিশেধক। ৫৩ দিনের শেষে ২কোটি ৬৫ লক্ষ মানুষকে টিকা দেওয়া হয়েছে।

 প্রথম স্থানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম প্রথম ৫৩ দিনে টিকা দেওয়া হয়েছিল ৩ কোটি ৬৮ লক্ষ মানুষকে। তৃতীয় স্থানে থাকে ব্রাজিলে টিকা পেয়েছেন ১১.৩ মিলিয়ন। চতুর্থ স্থানে রয়েছে টার্কি। পঞ্চম স্থানে ব্রিটেন,