দেশে ১৭ হাজার ছাড়িয়েছে করোনা সংক্রমণ। আর কর্ণাটকে সংখ্যা ৪০০ ছুঁয়েছে। দেশকে করোনামুক্ত করতে লাগাতার লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন স্বাস্থ্যকর্মী ও পুলিশ বাহিনী। আর এই কাজ করতে গিয়েই বারবার অবুঝ জনতার রোশের মুখে পড়তে হচ্ছে তাদের। যার সর্বশেষ উদাহরণ তথ্যপ্রযুক্তি নগরী বেঙ্গালুরু। করোনাভাইরাস সংক্রমণের শিকার এক ব্যক্তির সংস্পর্শে আসা ৫৮ জনকে কোয়ারেন্টাইনে নিয়ে যেকে গিয়ে হামলার মুখে পড়তে হল স্বাস্থ্যকর্মী ও পুলিশ বাহিনীকে।

দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়ে গেল ১৭ হাজার, লকডাউনের মেয়াদ আরও বাড়িয়ে দিল তেলেঙ্গনা

দেশে আরও বাড়ছে লকডাউনের মেয়াদ, ইজ্ঞিত দিল বিমান সংস্থাগুলিকে দেওয়া ডিজিসিএ-র নির্দেশ

লকডাউনে গৃহবন্দি মানুষ, জনশূণ্য রাস্তায় নিশ্চিন্তে ঘুমোচ্ছে পশুরাজের পরিবার, ভাইরাল হল ছবি

পশ্চিম বেঙ্গালুরুর পদরাইয়ানাপুরা এলাকার বাসিন্দা ৩ জনের শরীরে গত সপ্তাহে পরীক্ষার পর কোভিড ১৯ পজিটিভ বের হয়। এই তিনজই দিল্লির নিজামুদ্দিনে ধর্মীয় অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন। সংক্রমণের খবর প্রশাসনের কাথে আসতেই এলাকা সিল করে দেওয়া হয়। রবিবার রাতে ওই ৩ ব্যক্তির সংস্পর্শে আসা ৫৮ জনকে কোয়ারেন্টাইনে নিয়ে যেতে এলাকায় আসেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। সঙ্গে ছিল পুলিশবাহিনীও। সেই সময় তাঁদের দিকে তেড়ে যায় প্রায় ২০০ স্থানীয় বাসিন্দা। ভাঙচুর করা হয় ব্যারিকেড। মেরে তাড়ান হয় স্বাস্থ্যকর্মীদের। ইতিমধ্যে মারধরের সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে।

 

বিষয়টি গোচরে আসতেই এলাকা পরিদর্শনে যান কর্ণাটকের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বাসবরাজ বোমাই। এই নিয়ে সোমবার সকালে  স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং পুলিশকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকও  করেন কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী বিএস ইয়েদুরাপ্পা। তাঁকে গোটা সম্পর্কে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। এই ঘটনায় ইতিমধ্যে ৫৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এই ঘটনায় পুলিশকে দোষীদের উপযুক্ত শাস্তির নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী ইয়েদুরাপ্পা।

 

এদিকে  স্বাস্থ্যকর্মীদের উপর এই হামলাকে একেবারেই ভাল চোখে দেখছে না কেন্দ্রীয় সরকার। রাজ্য প্রশাসনকে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রহ্লাদ যোশী। 

 

করোনা সংক্রমণ আটকাতে গিয়ে বারবার দেশের বিভিন্ন প্রান্তে উন্মত্ত জনতার হামলার মুখে পড়তে হচ্ছে স্বাস্থ্যকর্মীদের। কোথাও কোথাও ঘরছাড়া করা হচ্ছে চিকিৎসক ও নার্সদের। গত সপ্তাহেই উত্তরপ্রদেশের রামপুরে জীবাণুনাশক ছড়ানোর সময় স্বাস্থ্যকর্মীর ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে।  মারধর করে জোর করে মুখে জীবাণুনাশক ঢেলে ওই স্বাস্থ্যকর্মীকে খুনের অভিযোগও উঠেছে।