দেশে দ্বিতীয় দফার লকডাউন চলবে ৩ মে পর্যন্ত। ততদিন দেশে বন্ধ থাকবে ট্রেন ও বিমান পরিষেবা। ঘরোয়া ও আন্তর্জাতির সব উড়ানই এই লকডাউনে বন্ধ রয়েছে। কিন্তু তারপরে কী হবে? সেই প্রশ্নই এখন উঁকি দিচ্ছে অনেকের মনেই। এই মধ্যেই এয়ার ইন্ডিয়ার একটি ঘোষণা যাত্রীদের মধ্যে আশার আলো সৃষ্টি করেছিল। রাষ্ট্রায়ত্ত এই বিমান সংস্থা শনিবারই জানিয়ে দেয়, ৪ মে থেকে নির্দিষ্ট কিছু ঘরোয়া রুটে তারা উড়ান পরিষেবা শুরু করবে। সেই তালিকায় ছিল মুম্বই, দিল্লি, কলকাতা, চেন্নাই এবং বেঙ্গালুরু।ইতিমধ্যে ৪ মে ও তার পরের তারিখগুলিতে টিকিট বুকিং নেওয়ায় শুরু করা হয়েছে। আর আন্তর্জাতিক রুটে আগামী ১ জুনে থেকে টিকিট বুকিং নেওয়া শুরু হবে।

দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়ে গেল ১৭ হাজার, লকডাউনের মেয়াদ আরও বাড়িয়ে দিল তেলেঙ্গনা

লকডাউনে গৃহবন্দি মানুষ, জনশূণ্য রাস্তায় নিশ্চিন্তে ঘুমোচ্ছে পশুরাজের পরিবার, ভাইরাল হল ছবি

মোদীর পর এবার ইমরানের দিকে সাহায্যের হাত, পাকিস্তানকে ৮.৪ মিলিয়ন ডলার দিলেন ট্রাম্প

তবে বিমান পরিবহণের ক্ষেত্রে এয়ার ইন্ডিয়া আশা জাগালেও কেন্দ্রীয় অসামারিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রকের বক্তব্য ধোঁয়াশা তৈরি করে দিল। ঘরোয়া এবং আন্তর্জাতিক উড়ানের ক্ষেত্রে লকডাউন প্রত্যাহার বা শিথিল করার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না নেওয়া পর্যন্ত বিমান সংস্থাগুলিকে নতুন করে বুকিং নিতে মানা করেছে কেন্দ্রীয় অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রক। এক ট্যুইট বার্তায় কেন্দ্রীয় অসামরিক বিমান পরিবহণমন্ত্রী হরদীপ সিং পুরী বলেন, ‘ঘরোয়া এবং আন্তর্জাতিক রুটে উড়ান শুরু করা নিয়ে এখনও পর্যন্ত মন্ত্রকের তরফ থেকে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি এবং বিমান সংস্থাগুলিকে তার ব্যাখ্যাও দেওয়া হয়েছে।’ লকডাউন নিয়ে কেন্দ্র সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরেই বিমান সংস্থাগুলিকে বুকিং নেওয়া শুরু করার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। কেন্দ্রীয় অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রকের নির্দেশনামা অনুযায়ী বিমান সংস্থাগুলির কাছে নির্দেশিকা পাঠিয়েছে ডিজিসিএ। সেই নির্দেশিকায়  ডিজিসিএ স্পষ্ট বলেছে, ‘৪ মে থেকে যাত্রিবাহী বিমান চালানোর কোনও নির্দেশ দেওয়া হয়নি।’

 

 

ডিজিসিএর এই নির্দেশিকা পাওয়ার পরেই এয়ার ইন্ডিয়া টিকিট বুকিং বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। একই পথে এগিয়েছে ইন্ডিগোও। আগামী ৩১ মে পর্যন্ত অন্তর্দেশীয় সব বিমানের টিকিট বুকিং বন্ধ করে দিয়েছে ইন্ডিগো।

গত ২২ মার্চ  থেকে আন্তর্জাতিক বিমান ওঠানামা বন্ধ রয়েছে দেশে। আর ২৫ মার্চ থেকে বন্ধ  অন্তর্দেশীয় বিমান পিরষেবাও।ডিজিসিএ  জানিয়ে দিয়েছে, লকডাউনের মেয়াদে কাটা সমস্ত বিমানের টিকিটের টাকা যাত্রীরা চাইলেই ফেরত পাবেন। পাশাপাশি টিকিট ক্যানসেল করার জন্য অতিরিক্ত টাকা নিতে পারবে না কোনও এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষই।