চলছে লোকসভা ভোটের ষষ্ঠ দফা।  সাত রাজ্যে মোট ৫৯ টি আসনের ষষ্ঠ দফার ভোটগ্রহণ হচ্ছে। দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, হরিয়ানা, মধ্যপ্রদেশ, বিহার,ঝাড়খণ্ড এবং পশ্চিমবঙ্গে সকাল থেকেই ভোট দিচ্ছেন হেভিওয়েট প্রার্থীরা। দেখে নেওয়া যাক সেই ছবি।

এনপি সিনিয়ার সেকেন্ডারি স্কুলে এসে ভোট দিলেন রাহুল গাঁধী। গোটা দেশ তাকিয়ে রয়েছে তাঁর নিজের ভোট ভাগ্যের দিকে। বিশেষজ্ঞরা  বলেও দিচ্ছেন, এবার লড়াই মোদী ভার্সেস রাহুল গাঁধী।

ভোট দিলেন অতিশী মারলেনা। উত্তর দিল্লির আপ প্রার্থী গোটা দেশের সংবাদ শিরোনামে ছিলেন। তাঁর বিরুদ্ধে কুৎসা করছেন গৌতম গম্ভীরের দল, চলছে চরিত্র হননের চেষ্টা, এই ছিল অভিযোগ।



মারলেনার অভিযোগকে  স্ট্রেট ড্রাইভ মেরেছিলেন গম্ভীর। বলেছিলেন অভিযোগ প্রমাণ করতে পারলে প্রার্থীপদ তুলে নেবেন। নোটিশও ধরিয়েছিলেন কেজরীবাল বাহিনীকে।  এদিন ভোট দিলেন সকাল সকাল। 

 

কংগ্রেসের শীলা দীক্ষিত  ও আপ-এর দিলীপ পাণ্ডের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছেন উত্তর পূর্ব দিল্লির  বিজেপি প্রার্থী মনোজ তিওয়ারি। সকাল সকাল ভোট দিলেন নিজের কেন্দ্রে।


ভোট দিলেন হরিওয়ানার মুখ্যমন্ত্রী মনোহরলাল খট্টর।

 


পূর্ব দিল্লিতে ভোট দিলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর ডেপুটি মনীশ সিসৌদিয়া। তাঁকে সঙ্গে নিয়েই সাংবাদিক সম্মেলন করেছিলেন অতিশী মারলেনা। ওই কুৎসাপত্রে জড়ানো হয়েছিল তাঁরও নাম।



ভোট দিলেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ।



সকাল সাড়ে সাতটার মধ্যে ভোট দেন ক্যাপ্টেন কোহলি।
 


নিজের কেন্দ্রে ভোট দিয়েছেন প্রজ্ঞা সিংহ ঠাকুর। মালেগাঁও বিস্ফোরণে অভিযুক্ত বিচারাধীন এই বিজেপি প্রার্থীকে নিয়ে কম নিউজপ্রিন্ট খরচ হয়নি এই কয়েক দিনে। নিজে নানা আকথা-কুকথা বলে নির্বাচনী বিধি ভঙ্গ করেছেন সাধ্বী প্রজ্ঞা নিজেই।