বিজেপির একাধিক ব্যক্তিত্ব বিভিন্ন সময়ে নানারকম বিতর্কিত মন্তব্য করে সংবাদ শিরোনামে এসেছেন। কখনও কেউ মন্তব্য করেছেন গরুর গঙ্গার জল পান করলে নাকি সিজারিয়ান ডেলিভারি এড়ানো সম্ভব। আবার কারওর দাবি বিরোধীদের তুকতাকের ফলেই অকালে প্রয়াণ ঘটছে বিজেপির বর্ষীয়ান নেতারা। আর এবার ফের অদ্ভুত মন্তব্য করে সংবাদের শিরোনামে এলেন অসমের বিজেপি বিধায়ক। 

অসমের শিলচরের বারাক ভ্যালির বিজেপি বিধায়ক দিলিপ কুমার পাল-এর কথায় সম্প্রতি উঠে এসেছে এক অবাক-করা তথ্য। তাঁর দাবি ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কায়দায় বাঁশি বাজালেই নাকি গরু বেশি দুধ দেয়! তাঁর এই মন্তব্য প্রকাশ্যে আসার পর ইতিমধ্যেই তাঁকে ঘিরে শুরু হয়েছে তুমুল হইচই। 

মঙ্গলবার সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাতকারে তিনি জানিয়েছেন, শনিবার তাঁর বিধানসভা এলাকায় একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে দাঁড়িয়ে তিনি এমন মন্তব্যই করেছেন তিনি। তিনি আরও বলেন যে, সঙ্গীত ও নাচের যে কতখানি ইতিবাচক প্রভাব রয়েছে সেই কথা বলতে গিয়েই এদিন এই কথা বলেন তিনি। তিনি আরও বলেন যে , এই বিষয়টি বিজ্ঞানসম্মতভাবে প্রমাণিত যে, গরু বাঁশির সুর শোনে, ঠিক যেমনটা ভগবান শ্রীকৃষ্ণের সঙ্গে হয়েছিল। ভগবান শ্রীকৃষ্ণ যখন বাঁশি বাজাতেন, দুগ্ধ উৎপাদন বেড়ে গিয়েছিল। 

শেষ হল এক অধ্যায়, প্রয়াত দেশের প্রথম মহিলা ডিজিপি

ভারতকে বিপাকে ফেলার চেষ্টা, অতিরিক্ত জল ছেড়ে বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি করল পাকিস্তান

শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়-কে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন, এবার দেশের বৃহত্তম সুড়ঙ্গ তার নামেই নামাঙ্কিত হওয়ার পথে 

বিধায়ক আরও দাবি করেন, কয়েক বছর আগে গুজরাতের একটি এনজিও প্রমাণ করে যে, বাঁশির সুরের সঙ্গে দুধের উৎপাদনের যে একটা যোগসূত্র রয়েছে, তা পরীক্ষাক দ্বারা প্রমাণ পেয়েছেন। সেইসঙ্গে তিনি আরও যোগ করেন যে, বিদেশি যেসব গরু ধবধবে সাদা দুধ দেয়, তাঁদের থেকে দেশি গরু যাদের দুধ অপেক্ষাকৃত হলদেটে, সেই দুধ বেশি স্বাস্থ্যকর বলে দাবি করেন তিনি। এমনটি দেশি গরুর দুধ থেকে তৈরি  চিজ, মাখন, বিদেশি গরুর দুধ থেকে তৈরি প্রোডাক্টের চেয়ে বেশি স্বাস্থ্যকর বলে দাবি করেন তিনি।