Asianet News BanglaAsianet News Bangla

'কোনও কান্নাকাটি নয়-দিনে ১৮ ঘণ্টা কাজ করুন', CEOর পরামর্শে তুলকালাম সোশ্যাল মিডিয়া

বোম্বে শেভিং কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান নির্বাহী, শান্তনু দেশপান্ডে, কাজের-জীবনের ভারসাম্য খুঁজেবের করার চেষ্টা করার পরিবর্তে ফ্রেশারদের দিনে ১৮ ঘন্টা কাজ করার পরামর্শ দিয়েছেন

CEO came under fire on social media for suggesting Frasers work 18 hours a day bsm
Author
First Published Aug 30, 2022, 10:58 PM IST

বোম্বে শেভিং কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান নির্বাহী, শান্তনু দেশপান্ডে, কাজের-জীবনের ভারসাম্য খুঁজেবের করার চেষ্টা করার পরিবর্তে ফ্রেশারদের দিনে ১৮ ঘন্টা কাজ করার পরামর্শ দিয়েছেন। যার ফলে সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীরা তাঁর বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিতে বাধ্য হয়েছে। বর্তমানে শান্তনু দেশপাণ্ডে যথেষ্ট সমালোচনার মুখে পড়েছেন নেটিজেনদের। 

১৮ ঘণ্টা কাজের পরামর্শ
 সকালে শেয়ার করা একটি লিঙ্কডইন পোস্টে, দেশপান্ডে তরুণ পেশাদারদের তাদের কাজের জন্য দিনের ১৮ ঘন্টা উত্সর্গ করার পরামর্শ দিয়েছেন। এখানেই শেষ নয়। চাকরি পাওয়ার প্রথম চার-পাঁচ বছর এভাবেই চলতে হবে বলেও পরামর্শ দিয়েছেন ফ্রেসারদের। তিনি লিখেছেন, “যখন আপনার ২২ বছর বয়স এবং আপনার চাকরিতে নতুন, তখন নিজেকে কাজের জগতে ডুবিয়ে দিন। ভাল খান এবং ফিট থাকুন, তবে কমপক্ষে ৪-৫ বছরের জন্য দিনে ১৮ ঘন্টা অফিসের কাজ করুন।” কঠোর পরিশ্রমী হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন শান্তনু দেশপান্ডে বলেছেন।  তিনি আরও বলেছেন, "আমি অনেক তরুণকে দেখছি যারা এলোমেলো বিষয়বস্তু নিয়ে ব্যস্ত থাকেন এবং নিজেরা বিশ্বাস করেন 'কাজের জীবনের ভারসাম্য, পরিবারের সাথে সময় কাটানো, পুনরুজ্জীবন ব্লা ব্লা' গুরুত্বপূর্ণ," তিনি লিখেছেন। তারপরই তিনি লিখেছেন এজাতীয় জিনিসগুলির জন্য তাড়াহুড়ো করার কোনও দরকার নেই। 

কান্নাকাটি করো না 
শান্তনু দেশপাণ্ডে লিখেছেন  কাজই তোমাদের পুজো। আর এরজন্য তোমরা কান্নাকাটি করবে না। কাজের ক্ষেত্রে নিরলস থাকারও পরামর্শ দিয়েছেন । বলেছেন '  এটি  জন্য আপনার জন্য আরও ভাল কিছু নিয়ে আসবে। ” 


ব্যক্তিগত এবং পেশাগত ভারসাম্য
এমন এক সময়ে যখন ব্যক্তিগত এবং পেশাগত ভারসাম্য একটি আলোচিত বিষয়, দেশপান্ডের অসঙ্গতিপূর্ণ দৃষ্টিভঙ্গি তাকে সোশ্যাল মিডিয়ায় উপহাস এবং ক্রোধের বিষয় করে তুলেছিল। তার লিঙ্কডইন পোস্টটি এমন একটি সময়ে আসে যখন 'নিভৃতে প্রস্থান' বিশ্বব্যাপী একটি ঘটনা হয়ে উঠেছে। সংবাদ সংস্থা AFP-এর মতে, এই শব্দটি শ্রমিকদের বোঝায় যে ওভারটাইম দেওয়া হবে না, কাজের সময়ের পরে কল করতে এবং সাধারণত তাদের চাকরিতে প্রয়োজনীয় ন্যূনতম  কাজটি করেতে।  কেউ কেউ এই বিষয়টিতে দমবন্ধকর অবস্থার সঙ্গে তুলনা করেছে। 

দেশপাণ্ডের ব্যাখ্যা
অসম্মানজনক মন্তব্য নিয়ে যখন তোলপাড় সোশ্যাল মিডিয়া তখন শান্তনু দেশপান্ডে একটি ব্যাখ্যা দিয়েছেন। তার ১৮ ঘন্টার নির্দেশ আক্ষরিক অর্থে বলার কোনও  উদ্দেশ্য ছিল না। এটি 'আপনার সব এবং তারপর কিছু দেওয়ার' জন্য একটি প্রক্সি।" লিঙ্কডইনে তেমনি লিখেছেন তিনি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড়
এক ব্যবহারকারী লিখেছেন, দিনে যদি ১৮ ঘণ্টা কাজ করতে হয় তাহলে বাকি থাকে মাত্র ৬ ঘণ্টা। সেই ৬ ঘণ্টায় কী বাকি সব নিত্যপ্রয়োজনীয় কাজ হবে? সেই ব্যক্তি ঘুমাবেন কখন আর বাকি কাজ করবেন কখন। অন্য একজন লিখেছেন 'আমি এই বিষয়ে সম্পূর্ণ একমত নই। জীবনের যেকোনো পর্যায়ে পরিবারকে সর্বদা অগ্রাধিকার দেওয়া উচিত। আপনি যা করছেন তা তাদের জন্য। তাদের পার্ক করা এবং একটি সাম্রাজ্য গড়ে তোলার দিকে মনোনিবেশ করার কোন মানে হয় না।' পেশাদারিত্ব নিয়ে নেওয়ার জন্য অনেকে সিইও-র  নিন্দা করার পরে এবং তার কোম্পানির কাজের সংস্কৃতি কেমন হবে তা ভাবার পরে, দেশপান্ডে উত্তর দিয়েছিলেন: “যারা BSC-তে সংস্কৃতি সম্পর্কে ভাবছেন, তারা যে কোনও সময় নির্দ্বিধায় আসতে পারেন বা আমাদের কারও সাথে কথা বলতে পারেন। "

নুন ছাড়াও এই চারটি খাবারে থাকে প্রচুর আয়োডিন, যা স্বাস্থ্যের জন্য জরুরি

'দেশের উন্নয়নে অগ্রনী ভূমিকা তরুণদের', কালিকটে ছাত্রদের অনুষ্ঠানে বললেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

আকাশ জুড়ে আলোর খেলা, ড্রোন লাইট শো-র ভাইরাল ভিডিও দেখে উত্তেজিত নেটদুনিয়া

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios