করোনাভাইরাসে আক্রান্ত তেলাঙ্গনার বাসিন্দা সফটওয়ার ইঞ্জিনিয়ার। বেঙ্গালুরুর একটি আইটি কোম্পানিতেই কর্মরত ছিলেন। অসুস্থ হয়ে বাসে করে নিজের বাড়ি হায়দরাবাদের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিলেন। সেখানেই জানা যায়  ২৪ বছরের সফটওয়ার ইঞ্জিনিয়ার করোনার জীবানুতে সংক্রমিত। কিন্তু এই ঘটনা সামনে আসতেই নড়েচড়ে বসেছে কর্নাটক প্রশাসন। জরুরি বৈঠক ডেকেছে স্বাস্থ্য দফতর। করোনায় আক্রান্ত ২৪ বছরের সফটওয়ার কর্মীর সংস্পর্শে আসা সব ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য দফতর। 

আরও পড়ুনঃ করোনার থাবায় ফিকে এবার রঙের উৎসবও, চিন থেকে আমদানি কমায় দাম বাড়ছে পিচকেরির

কী করে সংক্রমিত হলেন তেলাঙ্গনার যুবক? এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে গিয়ে রীতি আক্রান্ত যুবকের পূর্ব রেকর্ড নাড়াচাড়া করা শুরু হয়েছে। সেখান থেকেই জানা গেছে, গত মাসে তিনি কর্মসূত্রে গিয়েছিলেন দুবাইতে। সেখানে তাঁর প্রজেক্টের বাকি কর্মীরা ছিলেন হংকং-এর নাগরিক।  ১৯ ফেব্রুয়ারি তিনি বেঙ্গালুরু ফিরে আসেন। তারপরই তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। ছুটি নিয়ে নিজের বাড়ি হায়দরাবাদের উদ্দেশ্যে রওনাদেন। সেখানেই জানা যায় করোনার জীবানুতে সংক্রমিত তিনি। হয়দরাবাদের একটি  বেসরকারি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে তাঁর চিকিৎসা চলছে। বর্তমানে তাঁর অবস্থা স্থিতিশীল বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। কিন্তু এই ঘটনা সামনে আসার পরই উদ্বিগ্ন কর্ণাটক প্রশাসন। আক্রান্তের সহকর্মী, সহযাত্রী ও প্রতিবেশীদের স্বাস্থ্যের খোঁজ খবর নেওয়া শুরু হয়েছে। 

আরও পড়ুনঃ তাজমহলের শহরে এবার অধরা হোলির মজা, জারি থাকবে ১৪৪ ধারা
 
অন্যদিকে বর্তমানে স্থিতিশীল করোনায় আক্রান্ত দিল্লির বাসিন্দা। তিনিও ইতালি থেকেই বয়ে এনেছিলেন করোনার জীবানু। ইতালিতে করোনার প্রকোপ রয়েছে। কিন্তু দিল্লির আক্রান্ত ব্যক্তি অস্ট্রেলিয়া থেকে রওনা দেওয়ায় বিমান বন্দরে তাঁর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়নি।  কারণ অস্ট্রেলিয়ায়  এই রোগের কোনও প্রাদুর্ভাব লক্ষ্য করা যায়নি। কিন্তু দিল্লির ব্যক্তির শরীরে করোনার জীবানুর সন্ধান মেলার পর রীতিমত উদ্ধিগ্ন স্থানীয় প্রশাসন। তবে রাজস্থানের স্বাস্থ্য দফতর জানিয়েছে ইতালি থেকে জয়পুরে আসা পর্যটকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ প্রেমের টানে ফের ঘরছাড়া, আরও একবার কনের মাকে নিয়ে পালালেন বরের বাব
 
করোনা মোকাবিলায় ইতিমধ্যেই উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক করেছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রী হর্ষ বর্ধন।  খুব প্রয়োজন ছাড়া ইতালি, ইরান, দক্ষিণ কোরিয়া, সিঙ্গাপুরে না যাওয়ার জন্য দেশের মানুষের কাছে আবেদন জানিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি কাটমান্ড, ভিয়েতনাম, ইন্দোনেশিয়া, মালেশিয়া, চীন, হংকংসহ করোনা আক্রান্ত একাধিক দেশ থেকে আসা পর্যটকদের তালিকা তৈরি করে চিহ্নিত করার চেষ্টা করা হচ্ছে বলেও স্বাস্থ্য মন্ত্রক থেকে জানান হয়েছে । এই মুহূর্তে দেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা পাঁচ। বিশ্বে সংখ্যা নব্বই হাজারের কাছাকাছি। এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে প্রায় তিন হাজার মানুষের।