করোনাভাইরাসের স্বাস্থ্যবিধির কথা মাথায় রেখেই নিরাপত্তা ব্যবস্থা করা হয়েছে অযোধ্যায়। আগামী ৫ অগাস্ট রাম মন্দিরের ভূমি পুজোর অনুষ্ঠান। আগামী বুধবার অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ভূমি পুজো অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন বহু বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব। তাই মন্দির শহর অযোধ্যা মুড়ে ফেলা হয়েছে নিরাপত্তার চাদরে। এদিন সুরক্ষা ব্যবস্থা খতিয়ে দেখেন অযোধ্যা রেঞ্জের ডেপুটি ইন্সপেক্টর জেনারেল দীপক কুমার। তিনি জানিয়েছে করোনা স্বাস্থ্য বিধির ওপর জোর দেওয়ার পাশাপাশি নিরাপত্তার দিকেও জোর দেওয়া হয়েছে। 

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সুরক্ষার জন্য় একটি নির্দিষ্ট প্রটোকল অনুসরণ করা হচ্ছে। পাশাপাশি করোনাভাইরাসের প্রোটোকলও অনুসরণ করা হয়েছে। কোভিড যোদ্ধাদের মোতায়েন করা হবে। ড্রোনের মাধ্যমে ভিআইপি রুটগুলির ওপর নজরদারী চালান হবে। তবে অযোধ্যায় বসবাসকারীদের যাতায়াতের ওপর ওই দিন কোনও বিধিনিষেধ আরোপ করা হচ্ছে না। তবে স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছে এই দিন প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের না হওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।  তবে প্রশাসনের তরফে জানান হয়েছে বাইরের লোকেদের শহরে ঢোকার অনুমতি ওই দিন দেওয়া হবে না। 

শেষ মুহূর্তে অযোধ্যা সফর বাতিল যোগী আদিত্যনাথের, রাম মন্দিরের ভূমি পুজোর প্রস্তুতি খতিয়ে দেখা কথা ছি...
প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানান হয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর সুরক্ষার দায়িত্ব তাঁরাই পাবেন যাঁদের করোনা পরীক্ষার ফল নেতিবাচক হয়েছে। ৪৫ বছের কম বয়সী হতে হবে। তবে অভ্যন্তরীন সুরক্ষার বিষয়টি পরিচালনা করবেন এসপিজি কর্তারা। স্থানীয় ট্রাফল যাতে গতিশীল থাকে তার জন্য ইতিমধ্যেই নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।

আযোধ্যায় রাম মন্দিরের ভূমি পুজো উদযাপনের উদ্যোগ টাইমস স্কোয়ারে, বাধ সাধছে একটি মাত্র চিঠি 

এদিন অযোধ্যার নিরাপত্তা খতিয়ে দেখার জন্য উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের অযোধ্যা যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনা আক্রান্ত হয়ে ক্যাবিনেট সদস্যের মৃত্যুর পরই তিনি পূর্ব পরিকল্পিত অযোধ্যা সফর বাতিল করেন। 

প্যাংগং-এর আঙুলেই আটকে দিল্লি-বেজিং আলোচনা, শীতকালে লাল ফৌজের মোকাবিলায় প্রস্তুতি ভারতের .