কোভিড রোগীর মৃত্যুতে চিকিৎসককে নিগ্রহ করার অপরাধে অপরাধীদের গ্রেফতার করতে নির্দেশ দিয়েছেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী। উল্লেখ্য মঙ্গলবার অসমের কোভিড কেয়ার সেন্টারে এক কোভিড আক্রান্ত রোগীর মৃত্যুর পরেই মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে। চিকিৎসক সেজ কুমার সেনাপতির উপরে চড়াও হয় মৃতের পরিবার।

আরও পড়ুন, বাতিল সিবিএসই বোর্ডের দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষা, 'শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য ও সুরক্ষা সবার আগে',মত মোদীর 

অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা এটিকে বর্বর আক্রমণ বলে অভিহিত করে অপরাধীদের গ্রেফতার করতে আসাম পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছেন। হিমন্ত বিশ্ব শর্মা  টুইট করেছেন বলেছেন, 'আমাদের ফ্রন্টলাইন কর্মীদের উপর এই জাতীয় বর্বর হামলা প্রশাসন কিছুতেই সহ্য করবে না।' পুলিশের বিশেষ আধিকারিক জিপি সিং মুখ্যমন্ত্রীকে   জানিয়েছেন, 'এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই তিন জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।' প্রসঙ্গত, মধ্য অসমের হোজালি জেলার উডালি কোভিড কেয়ার সেন্টারে কর্মরত চিকিৎসক সেজ কুমার সেনাপতির উপর হামলা চালায় মহিলা সহ মৃতের পরিবারের প্রায় ২০ জন। কোভিড রোগীর মৃত্যুর পরেই ওই নৃশংস ঘটনাটি ঘটায় মৃতের পরিবার-আত্মীয়স্বজন।

আরও পড়ুন, Live Covid- কোভিডে সংক্রমণ-মৃত্যু দুইই কমল রাজ্যে, কলকাতায় ব্ল্যাক ফাংগাসে বলি আরও ১ 

 
এই ঘটনায় একটি ভিডিও উঠে আসে এবং যা ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। যেখানে দেখা গিয়েছে একদল মানুষ চিকিৎসকের উপর চড়াও হয়েছেন। হাতের কাছে বাসন-ঝাটা যা পেয়েছেন, তাই দিয়ে হামলা চালিয়েছেন। মাটিতে ফেলে কিল-ঘুসি-লাথি কিছুই পড়ে বাদ। তবে ওই চিকিৎসকের উপর হামলা চালানোর সময়  ভিডিওতে একজন পুলিশ সদস্যকে দেখা গেলেও, তাঁকে আক্রমণ থামানোর চেষ্টা করতে দেখা যায়নি।