কৃষক আন্দোলনের মধ্য়েই আগুন ঘি পড়ল। সিংঘু সীমানায় কৃষক আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়ে এবং কেন্দ্রীয় সরকারের বিরোধিতা করে আত্মঘাতী হলেন এক সন্ত। এর জেরে তোলপাড় জাতীয় রাজনীতি। এর প্রভাব কৃষক আন্দোলেনে জোরদার পড়বে বলে মনে করছেন অনেকেই।

আরও পড়ুন-এক ধাক্কায় কিছুটা নামল তাপমাত্রার পারদ, সপ্তাহের শেষেই রাজ্যে কনকনে শীত বাংলায়

বুধবার বিকেল চারটে নাগাত দিল্লি-হরিয়ানা সিমানার সিংঘুতে সন্ত রাম সিংহ গুলি চালিয়ে আত্মঘাতী হয়েছেন। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তাঁকে পানীপতের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। এরপরই তিনটি কৃষি আইনের বিরোধিতায় কৃষকদের আন্দোলন আরও জোরদার হতে পারে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক মহল। দিল্লি শিখ গুরুদ্বারা প্রবন্ধক কমিটির চেয়ারম্যান মনজিন্দর সিংহ সিরসা জানান, কৃষকদের এই দুর্দশা সহ্য করতে না পেরেই আত্মঘাতী হয়েছেন সন্ত রাম সিংহ। আত্মঘাতী হওয়ার আগে তিনি লিখেছেন, কৃষকদের উপর জুলুম হওয়া নিয়েো আমার মন আজ ব্যথিত। কৃষক দের উপর জুলুম হওয়ার এটাই আমার প্রতিবাদ। এই প্রতিবাদে কেউ নিজের পুরস্কার ত্যাগ করেছে। আমি আমার জীবন ত্যাগ করলাম।

আরও পড়ুন-বর্ধমানে শুভেন্দু-র রুদ্ধদ্বার বৈঠক, তবে কি তৃণমূল ছাড়ছেন বিশিষ্ট সাংসদ-সহ আরও নেতা

এরপরই নতুন করে ক্ষোভের আগুন জ্বলেছে কৃষক আন্দোলনে। প্রয়াত সন্ত রাম সিংহের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ট্যুইট করেছেন রাহুল গান্ধী। তিনি বলেন, সব সীমা পার করে দিয়েছে মোদী সরকার। অনেক কৃষক জীবন দিয়েছেন। জের ছাড়ুন অবিলম্বে আন্দোলন প্রত্যাহার করুন, অন্যদিকে, কৃষক আন্দোলন নিয়ে জনস্বার্থ মামলায় সুপ্রিম কোর্ট ইঙ্গিত দিয়েছে দুই পক্ষের প্রতিনিধিদের নিয়ে একটি কমিটি গঠন করা যেতে পারে। কিন্তু সেই প্রস্তাব মানতে নারাজ কৃষক সংগঠনগুলি।