একটি জনসমাবেশে দাঁড়িয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে প্রশ্নের মুখে জম্মু ও কাশ্মীরের রাজ্যপাল সত্য পাল মালিক। ভরা জনসভায় সন্ত্রাসবাদীদের উদ্দেশে সত্য পাল মালিক বলেন, দুর্নীতিগ্রস্ত রাজনীতিবিদদের মেরে ফেলা হোক, যারা কাশ্মীরের সমস্ত সম্পত্তি লুঠ করে নিয়েছে। তিনি আরও বার্তা দেন, সন্ত্রাসবাদীদের উচিত নিরপরাধা সাধারণ মানুষ এবং নিরাপত্তাবাহিনীকে ছেড়ে দিয়ে দুর্নীতিগ্রস্ত রাজনীতিবিদদের খুন করা।

এখানেই শেষ নয়,কার্গিলে অনুষ্টিত ওই জনসমাবেশ-এ দাঁড়িয়ে তিনি আরও বলেন, যেসব ছেলেরা হাতে বন্দুক তুলে নিয়েছে তা দিয়ে তাঁরা নিজেদের লোককেই হত্য়া করছে। বা হয়তো, হত্যা করছে কোনও ব্যক্তিগত নিরাপত্তারক্ষীকে বা কোনও পুলিশের বিশেষ আধিকারিককে। এর চেয়ে বরং তাঁদের খুন করা হোক যাঁরা কাশ্মীরের সমস্ত সম্পত্তি লুঠ করেছে। এখনও তাঁদের খুন করা হয়েছে কি না ভরা সভায় সেই প্রশ্নও তোলে ন তিনি।

আর তাঁর এই মন্তব্য প্রকাশ্যে আসতেই ওঠে বিতর্কের ঝড়। এরপর রাজ্যপালের কাছে এমন মন্তব্য করার কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, সাম্প্রতিককালে দুর্নীতি যেভাবে বেড়ে চলেছে, তার জেরেই রাগের বশেই তিনি  এমন মন্তব্য করেছেন বলে জানান তিনি। এরপর তাঁর এই মন্তব্যকে কেন্দ্র করে বিতর্ক আরও বাড়তে থাকায় এদিন সংবাদ সংস্থাকে দেওয়া সাক্ষাতরাকে তিনি জানান যে, রাজ্যপাল হিসাবে এমন মন্তব্য করা হয়তো তাঁর উচিত হয়নি। কিন্তু তিনি সেটাই বলেছেন যা তিনি অন্তর থেকেই বিশ্বাস করেন। 

একজন রাজ্যপালের এমন মন্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা। এদিন টুইট করে তিনি জানান, তাঁর এই কথা যেন সকলে মনে রাখে এবং এরপর যদি জম্মু ও কাশ্মীরে কোনও মূলধারার রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব বা কোনও অবসরপ্রাপ্ত ব্যুরো ক্র্যাট খুন হন তাহলে তা রাজ্যপাল সত্য পাল মালিকের আদেশের হবে।