লাদাখে লাল ফৌজের আগ্রাসনের প্রতিবাদে একের পর এক ভারতীয় সংস্থা চিনের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করেছে। এবার তাতে নবতম সংযোজন হিরো সাইকেল।  চিনের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করে দিল সাইকেল প্রস্তুতকারক সংস্থা হিরো গোষ্ঠী। হিরো সাইকেল্‌স-এর চেয়ারম্যান ও  কর্ণধার পঙ্কজ মুঞ্জল জানিয়েছেন, চিনা সংস্থার সঙ্গে আগামী কয়েকমাসে তাঁদের ৯০০ কোটি টাকারও বেশি কারবার হওয়ার কথা ছিল। তবে সাম্প্রতিক পরিস্থিতিতে কোনও চিনা সংস্থার সঙ্গেই আর  কাজ করতে চান না তাঁরা।

পূর্ব লাদাখের ভারত-চিন সীমান্তে উত্তেজনা সৃষ্টির পর ‘চিনকে বয়কট’ আন্দোলন দানা বেঁধেছে দেশজুড়ে।চিনা পণ্য বয়কটের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ইতিমধ্যেই। ভারতীয় রেল থেকে টেলিকমিউনিকেশন, সব খানেই চিনা সংস্থার সঙ্গে চুক্তি বাতিল করা হচ্ছে। লাদাখ ইস্য়ুতে চিনকে একেবারে কোণঠাসা করে দিচ্ছে ভারত। এমনকি ভারত সরকারও ইতিমধ্যে দেশে টিকটক-সহ ৫৯টি চিনা সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ নিষিদ্ধ করে দিয়েছে। এই অ্যাপগুলির বিরুদ্ধে গ্রাহকদের ব্যক্তিগত তথ্যের উপর গোপন নজরদারির অভিযোগ ছিল। চিনা সংসর্গ ছাড়তে এবার পদক্ষেপ করল ভারতের নামকরা সাইকেল কোম্পানি হিরো। 

আরও পড়ুন: ভ্যাকসিন তৈরির চেষ্টায় দেশ, তার মাঝেই কেন্দ্রের রিসার্চ ইনস্টিটিউ থেকে পদত্যাগ অন্যতম বিজ্ঞানীর

হিরো সাইকেলসের চেয়ারম্য়ান তথা ম্য়ানেজিং ডিরেক্টর পঙ্কজ মুঞ্জল জানিয়েছেন, ”আগামী ৩ মাসে চিনের সঙ্গে আমাদের ৯০০ কোটি টাকার ব্য়বসা করার কথা ছিল। কিন্তু আমরা সব পরিকল্পনা বাতিল করেছি। চিনা পণ্য় বয়কট করতে আমরা অঙ্গীকারবদ্ধ”। এতদিন চিন থেকে হাই-এন্ড বাইসাইকেলের যন্ত্রাংশ আমদানি করত হিরো সাইকেলস। তবে এবার চিনা সংস্থার বিকল্প হিসেবে ব্য়বসার জন্য় অন্য় বাজারের খোঁজে রয়েছেন তাঁরা,  জানিয়েছেন পঙ্কজ মুঞ্জল। 

জানা যাচ্ছে চিনের বিকল্প হিসেবে এবার  জার্মানির বাজার ধরতে মরিয়া হিরো। পঙ্কজ মুঞ্জল জানান ,জার্মানিতে কারখানা গড়ার পরিকল্পনা রয়েছে হিরো সাইকেলের। এর ফলে ইউরোপের বাজারে নিজেদের মেলে ধরতে পারবেন তাঁরা।

আরও পড়ুন: বেজিং-ইসলামাবাদের অশুভ আঁতাত, এবার ফুঁসে উঠল পাক অধিকৃত কাশ্মীরের বাসিন্দারাও

মুঞ্জল এও জানিয়েছেন, লকডাউন ওঠার পর সংক্রমণ এড়াতে মানুষ গণপরিবহণের উপর ততটা ভরসা না রেখে সাইকেল চড়ে কর্মক্ষেত্রে যেতে চাইছেন। ফলে, সাইকেলের চাহিদা বেড়েছে বিশ্ব জুড়েই। এদিকে এদেশে  চিনা নির্ভরতা কমানোর বার্তা দিয়েছে  ইউনাইটেড সাাইকেলস পার্টস অ্য়ান্ড ম্য়ানুফেকচার্স অ্য়াসোসিয়েশনও (ইউসিপিএমএ)।