বয়স ছুঁয়েছে ৬৮। কিন্তু তাতে কি? একেবারে দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি তেজস যুদ্ধবিমানের সওয়ারি হওয়া শুধু নয়, কিছুক্ষণের জন্য তাকে নিয়ন্ত্রণ করলেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী। তাঁর সঙ্গে বিমানে থাকা ন্যাশনাল ফ্লাইট টেস্ট সেন্টারের প্রোজেক্ট ডিরেক্টর, এয়ার আইস মার্শাল এন তিওয়ারি জানালেন তাঁরা প্রায় শব্দের গতিবেগে উড়েছেন। আর তারপরই একেবারে শিশুর মতো উত্তেজিত রাজনাথ সিং। বললেন তিনি 'শিহরিত' এবং এটা একটা 'বিশেষ অভিজ্ঞতা'।

বৃহস্পতিবার, তেজস থেকে নেমে সাংবাদিকদের তাঁর অভিজ্ঞতা জানাতেগিয়ে প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং বললেন, ৩০ মিনিটের উড়ানটি ছিল একেবারে মসৃণ। দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি চতুর্থ প্রজন্মের এই যুদ্ধবিমানে উড়ান অত্যন্ত আরামদায়ক বলেও জানান তিনি। বায়ুসেনার পাইলটরা কোন পরিস্থিতিতে বিমান চালান, সেই অভিজ্ঞতা নেওয়াই তাঁর উদ্দেশ্য ছিল বলে জানিয়েছেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী।

আরও পড়ুন - ভারতের ঝুলিতে অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমান 'তেজস', রইল তার সম্পর্কে না জানা কিছু তথ্য

আরও পড়ুন - প্রতিরক্ষা মন্ত্রী হিসাবে নজির গড়লেন রাজনাথ সিং, সওয়ার হলেন তেজস যুদ্ধবিমানে

আরও পড়ুন - বিতর্ক অতীত, বায়ুসেনায় রাফাল-এর অন্তর্ভুক্তিতে একমাসও বাকি নেই, ফ্রান্স যাচ্ছেন রাজনাথ

আরও পড়ুন - কাশ্মীর নিয়ে এত কান্নাকাটি কীসের, লে-তে গিয়ে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সরব রাজনাথ

 

ডিআরডিও-এর প্রধান জি সতীশ রেড্ডি জানিয়েছেন, উড়ান চলাকালীন প্রতিরক্ষামন্ত্রী দারুণ খুশি ছিলেন। কিছুক্ষণের জন্য বিমানের নিয়ন্ত্রণ তাঁর হাতে দেওয়া হয়েছিল। বিমান চালানো প্রসঙ্গে রাজনাথ জানান, বিমান চালাতে তাঁর কোনও অসুবিধা হয়নি। এয়ার ভাইস মার্শাল এন তিওয়ারি যেভাবে যেভাবে বলেছেন, তিনি সেই মতো নির্দেশ পালন করেছেন।

পরে তেজস যুদ্ধ বিমানের ভুয়সী প্রশংসা করে রাজনাথ 'এরোনটিকাল ডেভেলপমেন্ট এজেন্সি', হিন্দুস্তান এরোনটিকাল লিমিটেড ও ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশনের বিজ্ঞানীদের অভিনন্দন জানান। তিন এই কথাও বলেন এতদিন রাফাল বা সুখোই -এর মতো যুদ্ধ বিমান ভারত কিনেছে অন্য দেশের থেকে। কিন্তু তেজসের উড়ান গুণামান দেখার পর তিনি নিশ্চিত বর্তমানে ভারত অন্যান্য দেশকে যুদ্ধবিমান বিক্রি করার মতো জায়গায় পৌঁছে গিয়েছে।