শিরোনাম পড়ে একটু অবাক লাগলেও এমনই খবর উঠে এসেছে সংবাদ মাধ্যম থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায়। শৌচালয়ে পাত্রের দাঁড়িয়ে থাকা সেলফিতেই নাকি বাড়িতে আসবে লক্ষ্মী অর্থাৎ টাকা। তাও আবার ১০০ বা ২০০ টাকা নয়, একেবারে ৫১,০০০টাকা। এমনই খবর ঘোরাফেরা করছে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে। এমনই ঘোষণা নাকি করেছে মধ্যপ্রদেশে কমল নাথের সরকার। 

জানা গিয়েছে, মুখ্যমন্ত্রী কন্যা বিবাহ বা নিকাহ যোজনার ভিত্তিতে বিয়ে হবে এমন মেয়ে বা মহিলার জন্য ৫১ হাজার টাকা দেওয়ার ঘোষণা করেছে মধ্যপ্রদেশ সরকার। কিন্তু এই যোজনাতে রয়েছে এক অদ্ভুত শর্তও! বলা হয়েছে টয়লেট বা শৌচালয়ের সামনে পাত্র দাঁড়িয়ে একটি সেলফি তুলবে এবং সেই ছবি আবেদন ফর্মের সঙ্গে তাকে জমা দিতে হবে। আর এই শর্ততেই মাথায় হাত অনেক যুবকের।

টানা তিনদিন, ফের পঞ্জাবে হানা দিল পাক ড্রোন, ধরে ফেললেন গ্রামবাসীরাই

এমন এক প্রি-ওয়েডিং ফটোশ্যুটে নাকি কপালে ভাঁজ পড়েছে অনেকেরই। তবে এই সেলফি বিষয় নিয়ে অনেকেই আবার ভিন্ন মত পোষণ করছেন। তাঁদের মতে, সরকারি আধিকারিকরা শৌচালয় পরীক্ষার জন্য আসছেন না, উল্টে পাত্রপক্ষকে এই ধরণের একটি সেলফি পাঠইয়ে দিতে বলছেন। 

এদিকে এই ধরণের ছবি তুলে তা পাঠাতে অনেকেই রাজি হচ্ছে না। কারণ অনেকের মতে, ম্যারেজ সার্টিফিকিটে এই ধরণের ছবি থাকলে তা অত্যন্ত লজ্জাজনক হবে তাদের জন্য। এমনকি এও নাকি বলা হয়েছে, যতক্ষণ পাত্র এই ধরণের ছবি দেবে না, ততক্ষণ কাজি তার নিকাহ পর্বও সম্পন্ন করবে না। আপাতত এই বাথরুম সেলফি নিয়েই যত গন্ডগোল বেধেছে ভোপালে।