গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে শতাধিক, এমনটাই জানাচ্ছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক। শুধু তাই নয় মঙ্গলবারও দেশে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজারের বেশি মানুষ। যেভাবে প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা তাতে ক্রমেই কপালে চিন্তার রেখা আরও বাড়ছে প্রশাসনের। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যা অনুযায়ী, বুধবার সকালে এদেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৭৪,২৮১। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩,৫২৫ জন। মৃত্যু হয়েছে ১২২ জনেপ। ফলে দেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২,৪১৫। স্বাস্থ্যমন্ত্রক বলছে দেশে করোনা যুদ্ধ জয় করে সুস্থ হয়েছেন ২৪,৩৮৬ জন। ফলে দেশে বর্তমানে সক্রিয় কেসের সংখ্যা ৪৭,৪৮০।

 

এতদিন সরকারের তরফে দাবি করা হচ্ছিল ইউরোপ ও আমেরিকার অন্যান্য দেশগুলির তুলনায় এদেশের করোনা পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। কিন্তু সাম্প্রতিক পরিসংখ্যান উদ্বেগ অনেকটাই বাড়াচ্ছে। দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৭০ হাজার ছাড়ানোর সঙ্গে সঙ্গেই গোটা বিশ্বে করোনা আক্রান্ত দেশগুলির তালিকায় ১২ নম্বরে উঠে এসেছে ভারত। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা 'হু'-এর দেওয়া তথ্য অনুযায়ী চিনের ঠিক পরেই রয়েছে আমাদের দেশ। ইতিমধ্যে আক্রান্তের সংখ্যায় কানাডা ও পেরুকেও ছাড়িয়ে গিয়েছে ভারত।

দেশে কপর্দক শূন্য হতে চলেছে এক তৃতীয়াংশ পরিবার, চতুর্থ দফার লকডাউন শুরুর আগেই আশঙ্কার মেঘ

এবার দেশেই তৈরি হচ্ছে রেমডেসিভির, ৪টি ভারতীয় সংস্থার হাত ধরে পৌঁছবে বিশ্বের ১২৭টি দেশে

বাড়ি ফেরার পথে জন্ম হল নবজাতকের, সন্তানকে কোলে নিয়েই ১৫০ কিলোমিটার পথ হাঁটলেন পরিযায়ী মা

গোটা বিশ্বে বর্তমানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪৩ লক্ষ ছাড়িয়েছে। তারমধ্যে সবচেয়ে খারাপ অবস্থায় রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। বর্তমানে দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ১৪ লক্ষের বেশি। তারপরেই রয়েছে যথাক্রমে স্পেন, রাশিয়া, ব্রিটেন, ইতালি, ফ্রান্স, ব্রাজিল, জার্মানি, তুরস্ক, ইরান ও চিন। আর ১২ নম্বর স্থানে ভারত।

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী দেশের মধ্যে করোনা সংক্রমণে এখনও একনম্বরে রয়েছে মহারাষ্ট্র। রাজ্যটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ২৪ হাজার ছাড়িয়েছে। তারপরেই রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর রাজ্য গুজরাও, তামিলনাড়ু, দিল্লি, রাজস্থান। করোনা আক্রান্ত অন্যান্য প্রদেশগুলির মধ্যে উল্লেখযোগ্য মধ্যপ্রদেশ, উত্তরপ্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ, অন্ধ্রপ্রদেশ, পঞ্জাব এবং তেলেঙ্গনা। 

এদিকে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন জানিয়েছেন দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণে সুস্থতার হার বেড়ে হয়েছে ৩১.৭৪ শতাংশ। মৃত্যু হার ৩.২ শতাংশ। বর্তমানে দেশে এক লক্ষ করোনা পরীক্ষা হচ্ছে দিনে। সরকারের ৩৪৭টি ল্যাবের পাশাপাশি বেসরকারি ১৩৭টি ল্যাবে এই পরীক্ষা করা হচ্ছে।