হায়দরাবাদে নিজের ফ্ল্যাটে উদ্ধার হল ইসরোর বিজ্ঞানী এস সুরেশের দেহ। ইন্ডিয়ান স্পেস রিসার্চ অরগানাইজেশনের অন্তর্গত ন্যাশনাল রিমোট সেন্সিং সেন্টারে বিজ্ঞানী হিসাবে কর্মরত ছিলেন সুরেশ। 

শহরের মূলকেন্দ্র আমীরপেটের অন্তপূর্ণা অ্যাপার্টমেন্টে নিজের ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয় সুরেশের দেহ। ৫৬ বছরের সুরশকে খুন করা হয়েছে বলেই মনে করছে পুলিশ। আদতে কেরলের বাসিন্দা সুরেশ  একাই থাকতেন ফ্ল্যাটটিতে। মঙ্গলবার অফিসের সহকর্মীরা তাঁকে ফোনে না পেয়ে সুরেশের স্ত্রীকে খবর দেন। চেন্নাইয়ে একটি ব্যাঙ্কে কর্মরত তাঁর স্ত্রী। 

সুরেশের মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাঁকে  ভারি কিছু দিয়ে আঘাত করা হয়েছিল বলে মনে করছে পুলিশ। দেহ ময়নাতদন্তে পাঠান হয়েছে।  কে খুন করল সুরেশকে, কী কারণে খুন হতে হল ইসরোর এই বিজ্ঞানীকে তা তদন্ত করে জানার চেষ্টা করছে পুলিশ। তদন্তের স্বার্থে অ্যাপার্টমেন্টের সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। 

গত ২০ বছর ধরে হায়দরাবাদ শহরের বাস করতেন সুরেশ। প্রথমে স্ত্রী সঙ্গে থাকলেও চাকরির কারণে বদলি হয়ে তাঁকে চেন্নাই যেতে হয়। তাদের ছেলে আমেরিকায় রয়েছে, মেয়ে থাকে চেন্নাইতে।