বিজেপি শাসিত ভারত কি গিলে নেবে গোটা পাকিস্তান-কে? ফের দেখা যাবে 'অখণ্ড ভারত'? রবিবার মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা দেবেন্দ্র ফড়নবিস বলেছেন, করাচি একদিন ভারতের অংশ হয়ে যাবে। কারণ তাঁর দল 'অখন্ড ভারত' ভাবনায় বিশ্বাস করে। তারপর এই প্রশ্নই ভেসে উঠেছে বিভিন্ন মহলে। তবে, করাচির আগে বিজেপি সরকার পুরো কাশ্মীর এনে দেখাক বলে কটাক্ষ করেছে বিরোধীরা।

এই ঘটনার সূত্রপাত অবশ্য গত সপ্তাহে। মুম্বইয়ে পশ্চিম বান্দ্রায় ঐতিহ্যশালী 'করাচি সুইটস' দোকানের মালিককে, তাঁদের দোকানের নাম থেকে 'করাচি' শব্দটি সরিয়ে দিতে নির্দেশ দিয়েছিলেন মধুকর নন্দগাঁওকর নামে এক শিবসেনা নেতা। বদলে কোনও মারাঠি নাম দিতে বলা হয়েছিল। এই ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয়ে হইচই পড়ে গিয়েছিল। তবে শিবসেনার সাংসদ সঞ্জয় রাউত স্পষ্ট জানিয়েছিলেন, গত ৬০ বছর ধরে করাচি বেকারি এবং করচি সুইটস মুম্বইয়ে রয়েছে। পাকিস্তানের সঙ্গে তাদের কোনও যোগ নেই। তাই, তাদের নাম পরিবর্তন করার নির্দেশ দেওয়া অর্থহীন। এটা শিবসেনার সরকারী অবস্থান নয় বলেই জানিয়েছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন - দেশীয় বিমানে দেশীয় ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা, আত্মনির্ভরতার দিকে আরও একধাপ এগোল বায়ুসেনা

আরও পড়ুন - 'গতি' দূরে সরলেও বঙ্গোপসাগরে ফের ঘনাচ্ছে ঘুর্ণিঝড়, কোথায় কখন আছড়ে পড়বে

আরো পড়ুন - বাংলা-সহ ৪ রাজ্য বাড়াচ্ছে চিকিৎসাধীন রোগীর ভার, কোথায় দাঁড়িয়ে ভারদতের করোনা পরিসংখ্যান

এই প্রসঙ্গেই রবিবার বিজেপি নেতা দেবেন্দ্র ফড়নবিস বলেছিলেন, 'আমরা অখন্ড ভারত-এ বিশ্বাস করি। আমরা এটাও মনে করি যে করাচি একদিন ভারতের অংশ হয়ে উঠবে।' সোমবার মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর এই বক্তব্যের জবাবে সিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত কটাক্ষের সুরে বলেন, 'প্রথমে পাকিস্তানের দখলে থাকা কাশ্মীর নিয়ে আসুন। আমরা নাহয় পরে করাচি যাব।'