বিখ্যাত গণিতজ্ঞ তথা সুপার থার্টির প্রতিষ্ঠাতা গণিতজ্ঞ আনন্দ কুমার এবার পেলেন এক বিশেষ সম্মান। দেশের অভাবী ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে শিক্ষার আলো জ্বালিয়ে তুলতে বিশেষ অবদান রয়েছে আনন্দ কুমারের। আর সেই কারণে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি সম্মানজনক পুরস্কারে ভূষিত করা হচ্ছে আনন্দ কুমারকে। 

সারা সপ্তান্ত জুড়ে ক্যালিফোর্নিয়ার সান জোসে দ্য ফাউন্ডেশন ফর এক্সিলেন্স নামে সংস্থাটির ২৫তম বার্ষিকী উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে আনন্দ কুমারকে দ্য এডুকেশন ফর এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড ২০১৯ পুরস্কার প্রদান করা হয়। বিশেষ এই সম্মানে ভূষিত হয়ে আনন্দ কুমার ওই অনুষ্ঠানে নিজের বক্তব্যও পেস করেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তথা সমগ্র দেশে বসবাসকারী ভারতীয় সম্প্রদায়ের উদ্দেশে তিনি বলেন, বিশ্বের সমস্ত জ্বলন্ত সমস্যার বিরুদ্ধে লড়াই করার অস্ত্র হয়ে ওঠার কথা বলেন তিনি। 

এদিন তিনি আরও বলেন যে, দারিদ্র, বেকারত্ব, জনসংখ্যা বিস্ফোরণ, পরিবেশের অবক্ষয় এবং আরও অন্যান্য অনেক সমস্যার সমাধান করতে শিক্ষাকে সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে পারলেই পার্থক্য চোখে পড়বে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের বিভিন্ন ক্ষেত্রে ভারতীয়রা বিস্ময়কর নানারকম কাজকর্ম করে চলেছে। সেই কাজকর্মের মধ্যে দিয়ে তারা যদি সমাজকে কিছু ফিরিয়ে দিতে পারে তাহলে তা তাঁদের জন্য অত্যন্ত সন্তুষ্টির একটা বিষয় হবে। সেইসঙ্গে তিনি আরও বলেন যে, শিক্ষার চেয়ে মুল্যবান আর কিছুই হতে পারে না। 

আরও পড়ুন- মার্কিন সেনাবাহিনীর ব্যান্ডের সুরে বেজে উঠল ভারতের জাতীয় সঙ্গীত, মুহূর্তে ভিডিও ভাইরাল নেটদুনিয়ায়

প্রসঙ্গত, দীর্ঘ আঠারো বছর ধরে আনন্দ কুমার ভারতের প্রিমিয়ার আইআইটি-জেইই-তে ভর্তির জন্য ৩০জন দরিদ্র শিক্ষার্থীকে সম্পূর্ণ বিনা মূল্যে এক বছরের একটি আবাসিক কোচিং প্রদান করে আসছেন তিনি, যার নাম সুপার থার্টি প্রোগ্রাম। সম্প্রতি তাঁর জীবন এবং কাজের ওপর আধারিত হৃতিক রোশন অভিনীত জনপ্রিয় ছবি সুপার থার্টি দর্শকমহলে যথেষ্ট প্রশংসা লাভ করেছিল। সবশেষ আনন্দ কুমার আরও বলেন, বঞ্চিতদের জীবনে পরিবর্তন আনতে শিক্ষার ক্ষমতা অপরিসীম, যা আজতে জাতির অগ্রগতির ক্ষেত্রে বিশেষভাবে সহায়ক।