দুর্নীতিগ্রস্ত সরকারি আধিকারিকদের বিরুদ্ধে ফের ব্যবস্থা নিল নরেন্দ্র মোদী সরকার। ২২ জন সুপারিন্টেন্ডেন্ট পদে থাকা আধিকারিককে বাধ্যতামূলক অবসর নেওয়ানো হল। এঁরা প্রত্যেকেই সেন্ট্রাল বোর্ড অব ইনডিরেক্ট ট্যাক্সেস অ্য়ান্ড কাস্টমস-এ কাজ করতেন। গত জুন মাসে একই ভাবে কেন্দ্রীয় সরকার দুর্নীতির অপরাধে ১২ জন সিবিডিটি আধিকারিক-সহ ২৭ জন উচ্চপদস্থ আইআরএস আধিকারিককে বাধ্যতামূলক অবসরে পাঠিয়েছিল।
 আরো পড়ুন - রেশন দোকানে সটান মন্ত্রী, অভিযোগের লিস্ট খুললেন ক্রেতা

আরো পড়ুন - এখন গুণ গাইছেন, আগে জেটলিকে 'দুর্নীতিগ্রস্ত' বলেছিলেন কেজরিওয়াল

আরও পড়ুন - 'কেস দেবেন না প্লিজ', সরকারি দফতরে বিক্ষোভ কুলটিতে

আরও পড়ুন - লজ্জা পাবেন কাটমানি খাওয়া নেতারাও, সরকারি টাকা হাতিয়ে জালে দম্পতি
সিবিআইসি জানিয়েছে, অবসরে পাঠানো ২২ জনের বিরুদ্ধেই হয় দুর্নীতি বা অন্য কোনও অপরাধের অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে, অথবা তাঁরা সিবিআই-এর জালে ধরা পড়েছিলেন। এই আধিকারিকরা দেশের বিভিন্ন এলাকায় জিএসটি সংগ্রহের কাজে ছিলেন।

সিবিআইসি এই ২২ জন আধিকারিকের নামের তালিকাও প্রকাশ করেছে। এঁরা হলেন - কেসি মণ্ডল, এমএস দামোর, আরএস গোগিয়া, কিশোর প্যাটেল, জেসি সোলাঙ্কি, এসকে মন্ডল, গোবিন্দ রাম মালব্য, এইউ ছাপারগারে, এস অশোকরজ, দীপক গানেয়ণ, প্রমোদ কুমার, মুকেশ জৈন, নবনীত গোয়াল, অচিন্ত্য কুমার প্রামানিক, ভিকে সিং, ডিআর চতুর্বেদী, ডি অশোক, লীলা মোহন সিং এবং ভিপি সিং।