তিন দিনের লাগাতার বৃষ্টির জেরে কার্যত ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করেছে বিহার, উত্তরপ্রদেশের বিস্তীর্ণ অঞ্চলে। যার যেরে এখনও পর্যন্ত কমপক্ষে ১৩৪ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। বিহারের পাটনাতে বর্ষার দেরিতে আগমনের জেরে বিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে কার্যত এক হাঁটু সমান জল দাঁড়িয়ে গিয়েছে। রাজ্যের দুর্যোগ ত্রাণ দফতরের প্রকাশিত রিপোর্ট অনুসারে উত্তরপ্রদেশ ও বিহারে গত ৭২ ঘণ্টা ভারী বৃষ্টিপাতের কারণেই এই বিপুল সংখ্যক মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। 

ভারতীয় রেলের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, টানা বৃষ্টির কারণে ২২টি আন্তঃদেশীর ট্রেন বাতিল হয়ে গিয়েছে। ভারতীয় আবহাওয়া দফতরের কথায়, দেশের একাধিক জায়গায় নিম্নচাপ অক্ষরেখাটি খুব শক্তিশালী হওয়ার কারণে এমন বর্ষা নেমেছে বলে জানানো হয়েছে। রেল পরিষেবা ব্যহত হওয়ার কারণে পাটনা রেলওয়ে স্টেশনে বহু যাত্রীর আটকে থাকার খবর পাওয়া গিয়েছে। ট্রেন বাতিলের পাশাপাশি বহু ট্রেনের গতিপথও ঘুরিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে খবর। 

আরও পড়ুন- প্রবল বৃষ্টিতে বানভাসি বিহার, রাজ্য়জুড়ে জারি লাল সতর্কতা

 

বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার গোটা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করার জন্য জেলা কালেক্টরদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। রাজ্যের জলসম্পদ মন্ত্রী সঞ্জয় কুমার ঝা জানিয়েছেন, তাদের তরফ থেকে যথাসাধ্য ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। সকল বন্যা বিধ্বস্ত মানুষদের ত্রাণ পাঠানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে। হাওয়া অফিস ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস জারি করেছে,  পাশাপাশি ফারাক্কা ব্যারেজ থেকে অতিরিক্ত মাত্রায় জল ছাড়ার কারণে গঙ্গার জলস্তর আরও বেশ খানিকটা বাড়তে পারে বলে জানা গিয়েছে।