মহারাষ্ট্রের জটিলতা কাটানোর অন্যতম চাবিকাঠি রয়েছে তাঁরই হাতে। সরকার গঠন নিয়ে ধোঁয়াশার মধ্যেই এবার সংসদে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠক করতে চলেছেন এনসিপি প্রধান শরদ পাওয়ার। যা মহারাষ্ট্রে সরকার গঠন নিয়ে তৈরি হওয়া টানটান নাটকে নতুন মোড় এনে দেয় কি না, তা নিয়েই জল্পনা শুরু হয়েছে। 

এনসিপি সূত্রকে উদ্ধৃত করে একটি সর্বভারতীয় ইংরেজি দৈনিকে দাবি করা হয়েছে, দুপুর সাড়ে বারোটা নাগাদ সংসদে এই বৈঠক হওয়ার কথা। এনসিপি নেতারা অবশ্য দাবি করছেন, বৃষ্টির ঘাটতির জেরে মহারাষ্ট্রের কৃষি ক্ষেত্রে যে সংকট তৈরি হয়েছে, তা নিয়েই মূলত বৈঠকে আলোচনা হওয়ার কথা। 

ঘটনাচক্রে গত সোমবার শীতকালীন অধিবেশন শুরুর দিন নিজের ভাষণে এনসিপি-র প্রশংসা শোনা গিয়েছিল প্রধানমন্ত্রীর মুখে। 

গত ১২ নভেম্বর থেকে মহারাষ্ট্রে রাষ্ট্রপতি শাসন লাগু হয়েছে। সরকার গঠনে কংগ্রেস এবং এনসিপি শিবসেনাকে সমর্থন করবে কি না, তার উপরই অনেকটা নির্ভর করছে নতুন সরকারের ভবিষ্যৎ। জোট বেঁধে ভোটে লড়লেও মুখ্যমন্ত্রী পদের দাবিকে ঘিরে বিজেপি এবং শিবসেনার মধ্যে মতবিরোধ শুরু হয়। 

আরও পড়ুন- রাজ্যসভায় নজির, হঠাৎ এনসিপি-র ভূয়সী প্রশংসা মোদীর মুখে, বিজেপি-কেও বললেন দেখে শিখতে

আরও পড়ুন- এনডিএ জোট থেকে সরানোর জের, বিজেপিকে তুলোধনা শিবসেনার

অন্যদিকে বুধবারও কংগ্রেস এবং শিবসেনার একাধিক সিনিয়র নেতাদের নিজেদের মধ্যে আলোচনায় বসার কথা। সেই বৈঠকেই মহারাষ্ট্রের নতুন জোট সরকারের জন্য ন্যূনতম অভিন্ন কর্মসূচির রূপরেখা তৈরি করা হতে পারে। তার পরেই কাটতে পারে মহারাষ্ট্রে সরকার গঠনের জট। সোমবারই দিল্লিতে কংগ্রেস সভানেত্রী  সোনিয়া গাঁধীর সঙ্গেও দেখা করেছিলেন পাওয়ার। তার পরেও নতুন  সরকার গঠন নিয়ে কোনও কথা শোনা যায়নি এনসিপি সুপ্রিমোর মুখে। শিবসেনা অবশ্য এখনও আশাবাদী ডিসেম্বরের মধ্যে মহারাষ্ট্রে নতুন সরকার গঠন হবে।