প্লাস্টিকের ব্যবহার বন্ধ করতে বিরাট মাত্রায় প্রচার চালাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আরও একবার একক ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিকের ব্যবহার নিয়ে বার্তা দিলেন নরেন্দ্র মোদী। প্রধানমন্ত্রী এদিন বলেন, প্লাস্টিকের ব্যবহার রোধে ভারতের তরফে যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেই একই পদক্ষেপ সারা বিশ্বের তরফে গ্রহণ করা উচিত। 

গ্রেটার নয়ডায় আয়োজিত, বিশ্ব জলবায়ু পরিবর্তন সংকট সভায়ে বক্তব্য রাখতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী জলবায়ু পরিবর্তন এবং জমির মরুভূমি হয়ে যাওয়া থেকে আটকাতে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে গৃহীত পদক্ষেপের কথা তুলে ধরেন। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বিশ্বব্যাপী এটি গৃহীত হয়েছে যে, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে সারা বিশ্বই ব্যপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। এদিন জাতিসঙ্ঘের সম্মেলনের ১৪ তম অধিবেশনে এসে নরেন্দ্র মোদী জানালেন,  তাঁর সরকার ঘোষণা করেছে আগামী এক বছরের মধ্যে এক ব্যবহারযোগ্যে প্লাস্টিকের ব্যবহার বন্ধ করে দেওয়া হবে। তাঁর বিশ্বাস এখনই সময় এসে গিয়েছে ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিকে চিরতরে বিদায় জানানোর। 

 

চলতি বছর মহাত্মা গান্ধীর ১৫০ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আগামী ২ অক্টোবর থেকেই সারা দেশে ৬ ধরণের প্লাস্টিকের দ্রব্যের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে মোদী সরকার। এই ছয়টি প্লাস্টিক দ্রব্যের মধ্যে রয়েছে প্লাস্টিকের ব্যাগ, কাপ, প্লেট, ছোট বোতল, স্ট্র এবং নির্দিষ্ট ধরণের স্যাশে। আশা করা হচ্ছে এই নিষেধাজ্ঞার ফলে ভারতের বার্ষিক প্লাস্টিক ব্যবহারের ১৪ মিলিয়ন টন অর্থাৎ প্রায় পাঁচ শতাংশ হ্রাস পাবে। 

 

সোপিয়ান দিয়ে অনুপ্রবেশের চেষ্টা, উপত্যকায় সেনাবাহিনীর ওপর হামলার ছক লস্কর জঙ্গির

চন্দ্রপৃষ্ঠে বাধা,তাই বিক্রমের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করা যাচ্ছে না,জানালেন চন্দ্রযান-১-এর ডিরেক্টর

চন্দ্র অভিযানে 'কলঙ্ক', এনআরসি তালিকায় নাম নেই চন্দ্রযান-২-এর বিজ্ঞানীর

শুধু চন্দ্রযান-২ নয়, গত ছয় দশকে ৬০ শতাংশ চন্দ্রাভিযান সাফল্য পেয়েছে, জানাল নাসা

অতিরিক্ত মাত্রায় প্লাস্টিক ব্যবহারের ফলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে সামুদ্রিক জীবন। যেখানে প্রায় পঞ্চাশ শতাংশ একক ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিক পণ্য এসে মেশে, যা সামুদ্রিক প্রাণীদের নির্বিচারে হত্যা করে , সেইসঙ্গে মানুষের খাদ্যশৃঙ্খলে প্রবেশ করে। আর সেই পরিস্থিতি থেকে রুখে দাঁড়াতেই প্লাস্টিক ব্যবহারের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা যাতে বন্ধ না হয়, সেইজন্য বিরাট অঙ্কের জরিমানাও আরোপ করা হবে বলে জানা গিয়েছে।