সন্ত্রাসবাদ ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বারবারই গর্জে উঠছেন। আরও একবার প্রধানমন্ত্রী পদে শপথ নেওয়ার পর দুদিনের বিদেশ সফরে মলদ্বীপ ও শ্রীলঙ্কায় গিয়ে বারবার মোদীর মুখে ঘুরেফিরে এল সন্ত্রাসবাদের কথা। 

এর দিন কয়েক আগে অবশ্য পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে আলোচনায় বসার জন্য চিঠি পাঠালেও তাতে বিশেষ আমল দেননি মোদী। মলদ্বীপের ভাষণে নাম না করেই পাকিস্তানকে তোপ দেগেছিলেন নরেন্দ্র মোদী। এবার শ্রীলঙ্কা সফরে গিয়েও মোদীর জবানিতে ঘুরে ফিরে এল সন্ত্রাসনবাদের প্রসঙ্গ। ইস্টার রবিবারের সকালে ধারাবাহিক বিস্ফোরণের জেরে প্রাণ হারিয়েছিল প্রায় দুশোরও বেশি মানুষ। ধারাবাহিক বিস্ফোরণের জেরে রীতিমতো কেঁপে উঠেছিল রাজধানী কলোম্বো। এই হামলার পর এই প্রথম কোনও বিদেশি রাষ্ট্রনেতা পা রাখলেন সেদেশে।

মলদ্বীপ সফর শেষে এবার শ্রীলঙ্কায় পা মোদীর

মলদ্বীপের সর্বোচ্চ সম্মানে ভূষিত হলেন নমো, উপহারস্বরূপ ব্যাট তুলে দিলেন প্রেসিডেন্ট সোহলিকে

শ্রীলঙ্কায় গিয়ে ইস্টার হামলায় মৃতদের উদ্দেশে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন তিনি। তিনি জানান, সন্ত্রাসবাদ কখনওই শ্রীলঙ্কার প্রাণশক্তিকে খর্ব করতে পারবে না। বিপদের দিনেও সর্বদা ভারতে পাশে পাবে শ্রীলঙ্কা। প্রসঙ্গত সেদেশের বেশকিছু সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মন্ত্রীর বিরুদ্ধেও জঙ্গি সংযোগ থাকার অভিযোগ উঠেছিল। যার যেরে তাঁরা পদত্যাগ করতেও বাধ্য হন, কেমলমাত্র নিজেদের কলঙ্ক মুক্ত করার জন্য। এই সন্ত্রাসবাদ দমন ইস্যুতে শ্রীলঙ্কার পাশে দাঁড়িয়েছে ভারত। ভবিষ্যতেও দাঁড়াবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন মোদী।