৬৯ বছরে পা রাখলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। নিজের জন্মদিন মাতৃভূমি গুজরাতেই কাটাবেন নরেন্দ্র মোদী। এদিন নর্মদা জেলার সরোবর বাঁধটির পরিদর্শনে যান প্রধানমন্ত্র। পাশাপাশি জন্মদিনে গান্ধীনগরে মা হীরাবেন সঙ্গেও দেখা করেন প্রধানমন্ত্রী। 

 

সোমবার গভীর রাতেই গান্ধীনগর পৌঁছান নরেন্দ্র মোদী। সারারাত রাজভবনেই ছিলেন তিনি। এরপর জন্মদিনের সকাল থেকেই একাধিক কর্মসূচীতে যোগ দেওয়ার কথা রয়েছে মোদী। মঙ্গলবার সকাল ছটার সময়ে মা হীরাবেনের সঙ্গে দেখা করে আশীর্বাদ নেন মোদী। ছোট ভাই পঙ্কজ মোদীর সঙ্গে রাইসিন গ্রামে থাকেন ৯৮ বছরের হীরাবেন। সেখান থেকে তিনি চলে যান সর্দার সরোবর বাঁধে। প্রসঙ্গত ২০১৭ সালে এই বাঁধটি উদ্বোধন করেছিলেন তিনি। সেইবারই একসময়য়ে সেই বাঁধের জলস্তর প্রথমবারের জন্য় সবচেয়ে বেশি উচ্চতায় পৌঁছে গিয়েছিল। সেবার উচ্চতা হয়েছিল ১৩৮.৬৮ মিটার। 

 

আরও পড়ুন- ৬৯ বছরে পা মোদীর, জন্মদিনের প্রাক্কালে ৬৯ ফুট লম্বা কেক কাটল হিন্দু সংগঠন

আরও পড়ুন- মঙ্গলবার জন্মদিন নরেন্দ্র মোদীর, আসানসোলের মন্দিরে পুজো দিয়ে গেলেন যশোদা বেন

আরও পড়ুন- দুর্নীতির বোঝা মাথায় নিয়েই কি আত্মঘাতী, অন্ধ্রপ্রদেশের প্রাক্তন বিধানসভা অধ্যক্ষের মৃত্যুতে উঠছে প্রশ্ন

আরও পড়ুন- মায়ের আশীর্বাদ নিয়েই দিন শুরু, জন্মদিনে 'নমামি নর্মদা মহোৎসব'এর উদ্বোধনে নরেন্দ্র মোদী

তারপর তিনি যান নর্মদা জেলারই কেভাদিয়া গ্রামে। সেখানকার খালবনি ইকো ট্যুরিজিম সাইটে যোগ দেন মোদী। এরপর একাধিক প্রকল্প পরিদর্শন করবেন প্রধানমন্ত্রী। যার মধ্যে নর্মদা নদীর ওপর সর্দার সরোবর প্রকল্প অন্যতম। বাঁধের কন্ট্রোল রুমেও যাওয়ার কথা রয়েছে তাঁর। এরপর নমামি নর্মদে মহোৎসবের শুভ উদঘাটন করবেন মোদী। সেখানে 'মা নর্মদা পুজন'-এও যোগ দেন তিনি। এরপর কেভাদিয়াতে একটি জনসভাতেও বক্তব্য রাখবেন তিন।