সারা দেশে প্রায় ১৫০টি শহরে শুরু হতে চলেছে ওলা বাইক পরিষেবা। আগামী ১২ মাসের মধ্যে সারা দেশের দেড়শোটি শহরে ওলা বাইক পরিষেবার চাহিদা দিনে দিনে এতটাই বাড়ছে যে, তার ফলস্বরূপই ওলা বাইক পরিষেবা বাড়ানোর কথা ঘোষণা করা হয়েছে কোম্পানির তরফে। 

দুই চাকার এই যানটি ভারতের সর্বত্রই চোখে পড়ে। এমনকী চারচাকার যানবাহনের তুলনায় এই পরিষেবা সবচেয়ে বেশি সাশ্রয়ী, পাশাপাশি চটজলদি ও দ্রুত বিকল্পও বটে। এই প্রসঙ্গে ওলার চিফ সেলস এবং মার্কেটিং অফিসার জানিয়েছেন, ওলা বাইক তার গ্রাকদের কাছে একটি স্মার্ট, উন্নতমানের এবং কম খরচসাপেক্ষ যাতাযাতের এক অন্যতম মাধ্যম হয়ে উঠেছে। তিনি আরও বলেন, ওলা বাইক বিহারের ছাপড়ার মতো ক্ষুদ্র শহরগুলির পাশাপাশি গুরুগ্রামের মতো মেট্রোপলিটান শহরেও সমানভাবে পরিষেবা প্রদান করবে। 

বঙ্গে রামের পা পড়েছে উন্নয়ন হবেই, মুখ্যমন্ত্রীকে 'লঙ্কিনি' বলে কটাক্ষ করলেন বিজেপি বিধায়ক

'তাঁদের উদ্ভাবনী ক্ষমতা ছাড়া মানবজাতির অগ্রগতি অসম্পূর্ণ', ইঞ্জিনিয়ার্স ডে বললেন নরেন্দ্র মোদী

আন্তর্জাতিক গণতন্ত্র দিবসে নাম না করেই কি কেন্দ্রকে তোপ মমতার, টুইট করে কী বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী

সদ্য হারিয়েছেন ছেলেকে, বিধবা পুত্রবধুর ফের বিয়ে দিয়ে মানবিকতার নজির গড়লেন শাশুড়ি

তিনি আরও বলেন, ওলা বাইক পরিষেবা চালু হওয়ায় জীবিকার সংস্থান করে উঠতে পেরেছেন তিন লক্ষ মানুষ। আগামী বছরগুলিতেও কয়েক মিলিয়ন বাইকারের ওপর প্রভাব বিস্তার করতে পারবেন বলেও আশা প্রকাশ করেছেন তাঁরা। প্রসঙ্গত ওলা বাইক তার পথ চলা শুরু করেছিল ২০১৬ সালে গুরুগ্রাম, ফরিদাবাদ ও জয়পুরের হাত ধরে। তবে কোম্পানীর তরফ থেকে এবার হায়দরাবাদ, চণ্ডিগড় ও কলকাতার পাশাপাশি  বিহারের গয়া, রাজস্থানেপ বিকানের এবং উত্তরপ্রদেশের মুঘলসড়াইয়ের মতো ছোট শহরগুলিতেও নিয়ে আসা হবে বলে জানা গিয়েছে।