আবারও ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সোমবার সকাল ১০টা নাগাদ বৈঠক শুরু হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সূত্রের খবর এখনও পর্যন্ত  দেশের নটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এই বৈঠকে অংশ নিতে পারেন। করোনাভাইরাস সংক্রমণ মোকাবিলায় এর আগেও একাধিকবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী রাজ্যগুলির সঙ্গে কথা বলেছিলেন। 

রবিবার মন কি বাত অনুষ্ঠানে করোনাভাইরাস সংক্রমণ মোকাবিলায় রাজ্যগুলির লড়াইয়ের ভূয়সী প্রশংসা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেখানেই তিনি বলেন কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে তালমিল রেখেই কাজ করছে সবকটি রাজ্য ও কেন্দ্রীয় শাসিত অঞ্চল। গত ২০ এপ্রিল লকডাউনে এলাকাভিত্তিক কিছু ছাড়ের কথা ঘোষণা করা হয়েছিল। আগামিকালের বৈঠকে সেই নিয়ে আলোচনা  হতে পারে। পাশাপাশি করোনা পরিস্থিতি, নমুনা পরীক্ষা সহ চিকিৎসকদের নিরাপত্তা নিয়েও আলোচনা হতে পারে বলে সূত্রের খবর। পাশাপাশি একটি সূত্র জানাচ্ছে রাজ্যগুলি আর্থিক প্যাকেজেরও দাবি জানাতে পারে। 

 সূ্ত্রের খবর আগামিকালের বৈঠকে বিহার, ওড়িশা, গুজরাট, হরিয়ানা, উত্তরাখণ্ড ও হিমাচল প্রদেশ বৈঠেকে অংশ নেবে। কথা বলবে মেঘালয়া ও মিজোরামের মুখ্যমন্ত্রীরাও। সূত্রের খবর বৈঠকে অংশ নিতে পারে পদুচেরিও। দেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে ছোট বড় সব রাজ্যের সঙ্গেই মত বিনিয়ম করতে চান প্রধানমন্ত্রী। গত ২০ মার্চ করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে প্রথম বৈঠক হয়েছিল। দ্বিতীয় বৈঠক হয় ২ এপ্রিল। তৃতীয় বৈঠক হয় গত ১১ই এপ্রিল। 

আরও পড়ুনঃ ইদের আগেই বিশ্বকে করোনাভাইরাস মুক্ত করতে আরও প্রার্থনা, মন কি বাতে মন্তব্য মোদীর ...

আরও পড়ুনঃ লকডাউনের ১ মাস পরেও নমুনা পরীক্ষা থেকে অভিবাসী শ্রমিক সমস্যা অধরা , উদ্বেগ প্রকাশ রাহুল গান্ধির ...

আরও পড়ুনঃ একেই বোধহয় বলে 'দায়িত্বের গুঁতো', লকডাউনে ২ বিচারপতি গাড়ি ছোটালেন ২ হাজার কিলোমিটার ...

অন্যদিকে স্বাস্থ্য মন্ত্রক সূত্রে খবর রবিবার দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ২৬ হাজার ছাড়িয়েছে। বর্তমানে আক্রান্তের মোট সংখ্যা ২৬,৯১৭। গত ২৪ ঘণ্টায় ১,৯৭৫ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৮২৬ জনের। এখনও আক্রান্তের তালিকার শীর্ষে রয়েছে মহারাষ্ট্র। আক্রান্তের সংখ্যা ৩০৭১ হওয়ায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে গুজরাট।