শুক্রবার সন্ধ্যায় কেরালার কোঝিকোড়ের করিপুর বিমান দুর্ঘটনায়র বিভদসতা দেখে আঁতকে উঠেছে গোটা দেশ। জানা গিয়েছে,করিপুর বিমানবন্দরে দুবাই থেকে আগত বিমানটি অবতরণের সময় রানওয়েতে চাকা পিছলে যায়। যার কারণে টেবিলটপ বিমানবন্দরের রানওয়ে টপকে বিমানটি গিয়ে খাদে পড়ে যায়। এতটাই ভয়াবহতার সঙ্গে তা আছড়ে পড়ে যে বিমানটি দু'টুকরো হয়ে যায়। বিমানে সঙ্গে সঙ্গে আগুন ধরে যায়। পাইলট দীপক বসন্ত সাঠ, সহকারী পাইলটের মৃত্যু হয়েছে। মারা গিয়েছেন বহু যাত্রী। মৃতের সংখ্যা বাড়তে পার বলেও আশঙ্কা। আহত বহু যাত্রী। তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার পরই উদ্ধার কার্যের নির্দেশ দেন কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন।

আরও পড়ুনঃ১৮৪ জন যাত্রী নিয়ে ভেঙে দুই টুকরো এয়ার ইন্ডিয়ার বিমান, ভয়ানক দুর্ঘটনায় মৃত পাইলট

ঘটনার পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গেও কথা হয়েছে কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নের সঙ্গে। যথাসম্ভব সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। দুর্ঘটনার পর সোশ্যা মিডিয়ায় বার্তাও দেন নরেন্দ্র মোদী। ট্যুইটারে তিনি জানান, কোঝিকোড়ের বিমান দুর্ঘটনার ফলে আমি ব্যথিত। আমার চিন্তাভাবনা ও সমবেদনা তাদের সঙ্গে রয়েছে যারা দুর্ঘটনায় তাদের প্রিয়জনকে হারিয়েছেন। ঘটনায় আহতদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করি। পরিস্থিতি নিয়ে কেরালার মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আমাদের কথা হয়েছে। কর্তৃপক্ষ ঘটনাস্থলে রয়েছেন, ক্ষতিগ্রস্থদের সমস্ত সহায়তা প্রদান করছেন।' ঘটনার দিকে নজর রাখার কথাও জানানো হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর তরফে।

 

 

আরও পড়ুনঃএখনও পর্যন্ত ১৪ জন মৃত, ১২৩ জন আহত - দেখে নিন কেরলের বিমান দুর্ঘটনার যাত্রী তালিকা

আরও পড়ুনঃভয়াবহ দুর্ঘটনায় বন্দে ভারত মিশনের বিমান, কোজিকোড়় বিমানবন্দরে দুই টুকরো হল বোয়িং

শুধু প্রধনমনন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীই নয়, কেরালার বিমান দুর্ঘটনায় সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং সহ অন্যান্যরা। অমিত শাহ জানিয়েছেন,'কেরালার কোঝিকোড়ে এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেস বিমানের মর্মান্তিক দুর্ঘটনা সম্পর্কে জানতে পেরে ব্যথিত।' রাজনাথ সিং জানিয়েছেন,'কেরালার কোঝিকোড়ে বিমান দুর্ঘটনায় প্রাণহানির ঘটনায় আমি গভীরভাবে শোকাহত। এই মুহূর্তে নিহতদের পরিবারের সঙ্গে আমার সমবেদনা রয়েছে ও আহতেদর দ্রুচত সুস্থতা কামনা করছি।'শোকপ্রকাশ করেছেন বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। যেহেতু, বিমানটি দুবাই থেকে এসেছে, তাই এই বিষয়ে খোঁজখবর রাখছে বিদেশমন্ত্রকও। আরব আমিরশাহিতে ভারতীয় দূতাবাসের তরফেও এই ঘটনার শোকপ্রকাশ করে হেল্পলাইন নম্বর জারি করা হয়েছে।