দেশজুড়ে চলা লকডাউনের তুমুল বিপদের মধ্যে পড়েছেন কয়েক লক্ষ অভিবাসী শ্রমিক। সমস্যায় পড়েছিলেন ভিন রাজ্যে পড়তে যাওয়া পড়ুয়ারাও। দ্বিতীয় দফার লকডাউন উঠে যাওয়ার কিছু দিন দুয়েক আগেই তাদের জন্য এল সুখবর। রাজ্যগুলির দাবি মেনে আটকে পড়া অভিবাসী শ্রমিক, পড়ুয়া আর পর্যটকদের জন্য বিশেষ ট্রেনের ছাড়পত্র দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে তেমনই জানান হয়েছে। 

শুক্রবার সকালেই তেলাঙ্গনা থেকে ঝাড়খণ্ডের উদ্দেশ্যে রওনা দেয় প্রথম বিশেষ ট্রেন। ১২০০ যাত্রী ছিল। কঠোর ভাবে মানা হয়েছিল নিরাপদ দূরত্ব। রেলমন্ত্রক জানিয়েছে ২৪টি কোচের এই ট্রেন হাতিয়া ছাড়া আর অন্য কোনও স্টেশনে থামবে না। শ্রমিক দিবসের দিনেই ঘরে ফিরতে পেরে খুশির হাওয়া শ্রমিকদের জন্য। 

সূত্রের খবর  দ্বিতীয় ট্রেনটি শুক্রবার সন্ধ্যাবেলায় ছাড়বে কেরল থেকে। গন্তব্য ওড়িশা। প্রায় এক হাজার অভিবাসী শ্রমিক নিয়ে এরনাকুলাম স্টেশন থেকে ছাড়বে ট্রেনটি। থামবে ভূবনেশ্বরে। সূত্রের খবর ওই ট্রেনেই ওড়িশা থেকে অভিবাসী শ্রমিকরা ফিরবেন কেরলে। 

দক্ষিণভারতীয় রেলওয়ের পক্ষ থেকে স্পষ্ট করে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে সন্ধ্যে ৬টা সময়ই বিশেষ ট্রেন ছাড়বে। লকডাউনের বিধি যাতে কোনওভাবেই লঙ্ঘন করা না হয় সেদিকে বিশেষভাবে নজর দিতে হবে যাত্রীদের। কোনও রকম অস্বস্তিকর পরিবেশ তৈরি করা চলবে না। আর যাত্রার অনুমতি তাদেরই দেওয়া হবে যাদের রাজ্যসরকার চিহ্নিত করবে। এটি সম্পূর্ণরূপে রাজ্যসরকারের দায়িত্ব বলেও জানান হয়েছে। 

গতকালই কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে বিশেষ ট্রেনের আবেদন জানিয়েছিলেন। সূত্রের খবর প্রথম দফায় আলুভা থেকেই ফেরান হবে অভিবাসী শ্রমিকদের। কারণ এই এলাকায় সবথেকে বেশি অভিবাসী শ্রমিক থাকেন। কেরলে প্রায় ৩ লক্ষের বেশি অভিবাসী শ্রমিক থাকেন। যাদের জন্য রাজ্যে ২০ হাজারের বেশি ক্যাম্পের ব্যবস্থা করা হয়েছে। গতকালই মাল্লাপুরমে অনেক অভিবাসী শ্রমিকই বাড়ি যেতে চেয়ে বিক্ষোভ দেখিয়েছেন। কেরলের অধিকাংশ শ্রমিকই বাংলা,অসম, বিহার, ওড়িশা থেকে এসেছেন। 

আরও পড়ুনঃ করোনা মোকাবিলার পর এবার নতুন রেকর্ড কেরলের, পাশে রয়েছে গুরুগ্রামও ...

আরও পড়ুনঃ অভিবাসী শ্রমিকদের জন্য সুখবর, আটকেপড়াদের বাড়ি ফেরাতে বিশেষ ট্রেন রেল মন্ত্রকের ..

আরও পড়ুনঃ প্রধানমন্ত্রীর শেয়ার করা ভাইরাল ভিডিও, দেখুন হাসপাতাল থেকে ফিরে কী ভাবে ঘরে ঢুকলেন চিকিৎসক ...

দিন কয়েক আগেই অভিবাসী শ্রমিকদের বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার ছাড়পত্র দিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার। প্রথম দফায় বলা হয়েছিল স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাসে করেই আটকে পড়াদের ফিরিয়ে নিয়ে যেতে হবে। কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকারের এই নির্দেশের বিরোধিতা করে বিশেষ ট্রেন চালানোর আবেদন জানা রাজ্যগুলি। রাজ্যগুলির আবেদনের ভিত্তিতেই বিশেষ ট্রেন চালানোর ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।