রাজ্যসভার ভোট ঘিরে উত্তপ্ত রাজস্থান বিধানসভা। কংগ্রেস বিধায়ক ওয়াজিব আলিক নিয়েই সমস্যা। সদ্য অস্ট্রেলিয়া থেকে ফিরেছেন বিধায়ক। করোনা স্বাস্থ্য বিধি অনুযায়ী তাঁর এখন থাকার কথা কোয়ারেন্টাইনে। কিন্তু বৃহস্পতিবারই ছিল রাজস্থান বিধানসভার ভোট গ্রহণ। তাই হাতে হাত রেখে কোয়ারেন্টাইনে বসে থাকতে পারেননি বিধায়ক। সোজা চলে এসেছিলেন বিধানসভায়। দলীয় প্রার্থীকে রাজ্যসভার সাংসদ হিসেবে সংসদে পাঠানোই ছিল তাঁর মূল উদ্দেশ্য। কিন্তু তাতেই আপত্তি জানায় বিজেপি। কোয়ারেন্টাইনের নিয়মভঙ্গ করার অভিযোগ তুলেছে বিজেপি। এককাঠি এগিয়ে বিজেপি বিধায়ক রামলাল শর্মা ফৌজদারী মামলা দায়ের করার দাবি তুলেছেন। দায়িত্বে থাকা রিটার্নিং অফিসারকে তিনি চিঠিও লিখেছেন।  সবমিলিয়ে জটিল হয়ে ওঠে পরিস্থিতি। 

কংগ্রেস বিধায়ক ওয়াজিব আলির দাবি, কোয়ারেন্টাইন ছেড়ে তিনি ভোট দিতে বিধানসভায় এসেছেন ঠিকই। কিন্তু সম্পূর্ণ মেনেছিলেন করোনা স্বাস্থ্যবিধি। তাই পিপিই পরেই তিনি ভোট দিতে এসেছেন। তিনি আরও বলেছেন, এটাকেই একটা ইস্যু করতে চাইছে বিজেপি। পরশু দিন তিনি অস্ট্রেলিয়া থেকে দেশে ফিরেছেন। কিন্তু রাজ্যসভা ভোটে উপস্থিত থাকার জন্য তিনি বিধানসভায় যাওয়ার আগেই করোনা পরীক্ষা করেছেন। সেখানে তিনি পাশ করেছেন। করোনার জীবাণু তাঁর শরীরে নেই।  পাশাপাশি তাঁর দাবি, নিজের ভোট নিজে দেওয়াও তাঁর অধিকারের মধ্যে পড়ে। 

গালওয়ান উপত্যকার নামকরণের ইতিহাস, কারাকোরামের পাহাড়ে মিশে রয়েছেন গুলামের শৈশব ...

বর্তমানে ভারতের কোনও সৈন্যকে আটক করেনি, ১০ জওয়ানকে মুক্তিদেওয়ার পর দাবি বেজিং-
অন্যদিকে মধ্যপ্রদেশেরও এক কংগ্রেস বিধায়ক পিপিই স্যুট পরে করোনাভাইরাস সংক্রান্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনেই ভোট দিতে এসেছিলেন। বিধায়ক কুণাল চৌধুরী মারাত্মক ছোঁয়াচে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। পিপিই স্যুট মাস্ক আর গ্লাভস পরে করোনাভআইরাস সংক্রান্ত স্বাস্থ্য বিধি মেনেই ভোট দিতে এসেছিলেন তিনি। 

মাত্র ২-৩ মাসেই উধাও অ্যান্টিবটি, বারবার করোনা আক্রান্তের আশঙ্কা উড়িয়ে দিচ্ছেন না বিশেষজ্ঞরা .

করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণেই পিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল রাজ্যসভা নির্বাচন। এদিন রাজ্যসভার ২৪টি আসনে ভোট গ্রহণ হয়।