ফের বিতর্কে ভোপালের বিজেপি সাংসদ প্রজ্ঞা সিং ঠাকুর। রবিবার, ক্ষত্রিয় মহাসভার এক সমাবেশে বক্তব্য রাখতে গিয়ে প্রজ্ঞা বলেন, প্রজ্ঞা 'শূদ্র' বর্ণের মানুষরা অজ্ঞ, 'বোধ কম' বলেই তাদের শূদ্র বললে তাদের খারাপ লাগে।   

বৈদিক ভারতে প্রচলিত চার বর্ণের মধ্যে সবচেয়ে নিম্ন বর্ণ ছিল শূদ্র। সেই বর্ণ সম্পর্কে বলতে গিয়ে প্রজ্ঞা বলেন, 'আমরা যদি ক্ষত্রিয়দের ক্ষত্রিয় বলি তবে তাদের খারাপ লাগে না। কোনও ব্রাহ্মণকে, ব্রাহ্মণ বললে তার খারাপ লাগে না। আমরা যদি তাদের বৈশ্যদের বৈশ্য বলি তবে তাদেরও খারাপ লাগে না। কিন্তু কোনও শূদ্রকে আমরা শূদ্র বললে তাদের  খারাপ লাগে, কারণ কী? কারণ তারা অজ্ঞ, তারা বুঝতে পারে না।'

ওই সভা থেকে প্রজ্ঞা আরও বিতর্কের উপাদান দিয়েছেন। সশস্ত্র বাহিনীতে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য আরও ক্ষত্রিয় মহিলাদের বেশি সংখ্যক শিশুর জন্ম দিতে বলেছেন তিনি। অন্যদিকে, চলমান কৃষকদের বিক্ষোভে অংশগ্রহণকারীদের তিনি দেশবিরোধী আখ্যা দিয়েছেন। তাঁর মতে এই আন্দোলন করছে কৃষকদের ছদ্মবেশে লুকিয়ে থাকা কংগ্রেস এবং বামপন্থীরা। দেশবিরোধী কর্মকাণ্ডে জড়িতদের জন্য জনসংখ্যা বৃদ্ধির নিয়ন্ত্রণকারী আইন প্রূর্তন করার কথাও তুলেছেন বিজেপি সাংসদ।