লাদাখে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে ভারতীয় সেনার উপর হামলা চালিয়েছে চিনা সেনা। চিনের অতর্কিত এই হামলায় প্রাণ হারিয়েছেন ভারতীয় সেনার ২০ জওয়ান। চিনের এই আগ্রাসেনর বিরুদ্ধে ফুঁসছে এখন গোটা দেশ। প্রধানমন্ত্রী চিনকে হুঁশিয়ারি দিলেও পিছিয়ে নেই আম জনতাও। চিনা পণ্য বয়কট করতে শুরু হয়ে গিয়েছে বিক্ষোভ-আন্দোলন। এর মধ্যেই এক অভিনব কাণ্ড ঘটিয়ে বসলেন গুজরাতের সুরাত শহরের একদল বাসিন্দা।

সুরাতের এক আবাসনের বাসিন্দারা চিনা পণ্য বয়কটের ডাকে সাড়া দিয়ে ভাঙতেশুরু করলেন নিজেদের বাড়ির টিভি। যেসব আবাসিকদের বাড়িতে চিনা সংস্থার তৈরি এলসিডি টিভি রয়েছে তারা ওপর থেকে ছুড়ে ফেলে দেন সেই টিভি। ইতিমধ্যে এমনই একটা ভিডিও নেট দুনিয়ায় ভাইরাল রয়েছে।

আরও পড়ুন: বাণিজ্যে এখনও ‘হিন্দি-চিনি ভাই ভাই’,মহারাষ্ট্রে ৭৬০০ কোটি টাকার বিনিয়োগ চিনা গাড়ি সংস্থার

যদিও এভাবে পয়সা দিয়ে কিনে ফেলা জিনিস নষ্ট করা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেক নেটিজেনরাই। বরং ভবিষ্যতে যাতে চিনা পণ্য আর না কেনা হয় সেদিকেই নজর দিতে বলছেন তাঁরা।

এদিকে অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে চিনকে শায়েস্তা করতে এবার ৩ হাজার চিনা পণ্য বয়কটের ডাক দিয়েছে দ্য কাউন্সিল অব অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স নামের একটি ব্যবসায়িক সংগঠন। ওই সংগঠনের জেনারেল সেক্রেটারি প্রবীণ খান্ডেলওয়াল বলেন, “লাদাখে চিনা আগ্রাসনের আমরা তীব্র নিন্দা করছি। তাই আমরা এর জবাবে চিনা পণ্য বয়কট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ” 

আরও পড়ুন: গালওয়ানকে এখনও নিজের অংশ দাবি চিনের, মধ্যরাতেই কড়া জবাব দিল ভারত

জানা গিয়েছে, বয়কট করা জিনিসের এই তালিকায় রয়েছে–টেক্সটাইল, বিল্ডার হার্ডওয়্যার, ফুটওয়্যার, গারমেন্টস, রান্নাঘরের জিনিস, লাগেজ, হ্যান্ড ব্যাগ, কসমেটিক্স , গিফট, ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিক্স জিনিসপত্র ইত্যাদি। বর্তমানে চিন থেকে ভারতে প্রতি বছর ৫ লক্ষ ২৫ হাজার কোটি টাকার পণ্য আমদানি করা হয় ৷ ভারতে সস্তা জিনিসের বাজারের কথা মাথায় রেখে এই পণ্য বিক্রি করা হয়৷ ২০২১ সালের মধ্যে চীন থেকে প্রায় ১ লক্ষ কোটি টাকার পণ্য আমদানি কমিয়ে ফেলার লক্ষমাত্রা নিয়েছে সংগঠনটি। এই বিষয়ে কেন্দ্রীয় বাণিজ্যমন্ত্রী পীযূষ গোয়েলের সঙ্গেও আলোচনা করা হবে বলে জানিয়েছে এই সংগঠন।