করোনা পরিস্থিতির জেরে বিশ্ববিদ্যালয় ও অন্যান্য উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জুলাইয়ের বদলে সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হতে পারে শিক্ষাবর্ষ। ইউজিসি-র একটি প্যানেল এই পরামর্শ দিয়েছে। লকডাউনের জেরে শিক্ষার ক্ষতি ও অনলাইনে পড়াশোনা সংক্রান্ত বিষয়গুলি খতিয়ে দেখতে ইউজিসি-র তরফে তৈরি করা হয়েছে দুটি কমিটি । দুটি কমিটিই তাদের ভিন্ন মতামত প্রকাশ করেছে।  

আরও পড়ুন, 'কাজে না আসলেই চাকরি থেকে বরখাস্ত', করোনা সঙ্কটে পুর চিকিৎসক-স্বাস্থ্য আধিকারিকদের কড়া বার্তা

 

জানা গিয়েছে, প্রথম কমিটির মতামত, শিক্ষাবর্ষ জুলাইয়ের বদল সেপ্টেম্বর থেকে চালু করা হোক। দ্বিতীয়টির মত, পরিকাঠামোর অসুবিধে না থাকলে বিশ্ববিদ্যালয়গুলি অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়া চালু করুক। অথবা লকডাউন উঠে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করা হোক।  তারপর শুরু হোক খাতায় কলমে পরীক্ষা। মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক সূত্রে খবর, এই দুটি রিপোর্ট খতিয়ে দেখার পর আগামী সপ্তাহে সরকারি নির্দেশিকা প্রকাশের সম্ভাবনা রয়েছে। প্রসঙ্গত, বিকল্প শিক্ষাবর্ষ ও লকডাউন চলাকালীন পরীক্ষা নেওয়া যায় কিনা দেখতে হরিয়ানা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর আরসি কুহাদের নেতৃত্বে তৈরি হয় একটি কমিটি। অন্যটির নেতৃত্বে ছিলেন ইগনু-র সহ উপাচার্য নাগেশ্বর রাও। এই কমিটির দায়িত্বে ছিল অনলাইন পড়াশোনার কীভাবে উন্নতি ঘটানো যায় সেটা দেখা। 

আরও পড়ুন, মর্গের ভার কমাতে পুলিশকে চিঠি বাঙ্গুর হাসপাতালের, মৃত ৬ জনের নামের পাশে লেখা 'কোভিড পজিটিভ'

অপরদিকে, জুলাইয়ে শিক্ষাবর্ষ চালু হওয়ার ক্ষেত্রে একটি সমস্যা হল, লকডাউনের জেরে বিভিন্ন প্রবেশিকা বোর্ড পরীক্ষা পিছিয়ে গিয়েছে। এখনও পর্যন্ত নিট ও জেইই-র মত পরীক্ষা  জুনে নেওয়া হবে বলে ঠিক করা আছে। কিন্তু সব কিছুই করোনা পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করছে। এমনটাই এ কথা জানিয়েছেন এক সরকারি আধিকারিক। উল্লেখ্য়, লকডাউনের জেরে ১৬ মার্চ থেকে দেশের সব স্কুল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ রয়েছে। সিবিএসই জানিয়েছে, তারা শুধু ক্লাসে ওঠার জন্য জরুরি এমন বাকি থাকা ২৯টি বিষয়ের পরীক্ষা নেবে।

 

 মল্লিক বাজারের নিউরো হাসপাতালে করোনা পজিটিভ ২ শীর্ষ কর্তা, সংক্রমণের আশঙ্কায় চূড়ান্ত সতর্কতা

 এবার বেসরকারিতেও করোনা চিকিৎসায় মিলবে বিনামূল্য়ের পরিষেবা, হাসপাতালের খরচও দেবে রাজ্য সরকার

করোনায় রাজ্যে মৃতের সংখ্য়া বেড়ে ১৮, গত চব্বিশ ঘন্টায় নতুন করে আক্রান্ত আরও ৫১