আচমকাই দেউলিয়া ঘোষণা করে দিল বিশ্বের অন্য়তম বৃহৎ ও প্রাচীন সংস্থা থমাস কুক। ১৭৮ বছরের পুরোনো এবং ঐতিহ্যবাহী ব্রিটিশ ট্রাভেল জেন্সি কোম্পানি থমাস কুক দেউলিয়া ঘোষণা করল। বর্তমানে কোম্পানিটির অবস্থা এতটাই শোচনীয় যে,এই মুহূর্তে সারা বিশ্বে প্রায় ৬ লক্ষ পর্যটক আটকে পড়েছেন বলে খবর। এই মুহূর্তে একটাই ভাবনা এই বিরাট সংখ্যক পর্যটককে কীভাবে দেশে ফেরানো হবে। 

জানা গিয়েছে, আচমকা কোম্পানির তরফে নেওয়া এই সিদ্ধান্তের কারণে চাকরি হারাতে চলেছেন ১৬টি দেশের প্রায় ২১,০০০ কর্মচারী, যাদের মধ্যে ব্রিটেনেই কর্মরত প্রায় ৯,০০০ কর্মচারী। প্রসঙ্গত, কোম্পানির তরফে প্রবলভাবে চেষ্টা করা হয়েছিল যে, কোম্পানির অংশীদারদের কাছ থেকে ২৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার জোগাড় করতে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা না পারায় অবশেষ দেউলিয়া ঘোষণা করা হল কোম্পানিটি। 

 

আরও পড়ুন- ফের ঊর্ধ্বমুখী পেট্রলের দাম, সোমবার নয়া দিল্লিতে এক ধাক্কায় বেড়ে হল ৭৩.৯১ টাকা

আরও পড়ুন- 'হাউডি মোদী' অনুষ্ঠানে কবিতা পাঠে প্রধানমন্ত্রী, জিতে নিলেন কয়েক হাজার হৃদয়

আরও পড়ুন- হিউস্টনে প্রধানমন্ত্রী, এক ঝাঁক অনাবাসী ভারতীয় উষ্ণ অভ্যর্থনা জানালেন মোদীকে

আরও পড়ুন- 'সোনালি পাখা লাগিয়ে চাঁদে উড়ে যাব বলে ভয়', সিবিআইকে উপহাস করে টুইট চিদম্বরমের

কোম্পানির চিফ একজিকিউটিভ পিটার ফ্যাঙ্খাওসের জানিয়েছেন, কোম্পানির জন্য এটি একটি অত্যন্ত দুঃখের দিন। কারণ একগুলো বছর ধরে থমাস কুক কয়েক লক্ষ মানুষের যাত্রাপথ অত্যন্ত সুগম করে তুলেছে। তবে এই পরিস্থিতিতে এখন সবথেকে বড় চিন্তা, এই মুহূর্তে সারা বিশ্বজুড়ে যে ছয় লক্ষ পর্যটক আটকে পড়েছেন তাদের কীভাবে ঘরে ফেরানো হবে। সংস্থার তরফে একটি বিবৃতি প্রকাশ করে জানানো হয়েছে, এই মুহূর্তে বিশ্বের বিভিন্ন কোণায় আটকে থাকা পর্যটকদের ঘরে ফেরানোর জন্য ব্রিটিশ সিভিল অ্যাভিয়েশন অথরিটি এবং সরকারের তরফে চাটার্ড বিমান পরিষেবার ব্যবস্থা করা হয়েছে, যাতে করে পর্যটকদের ঘরে ফেরানো সম্ভব হয় এবং এর জন্য কোনও অর্থ লাগবে না বলেও জানানো হয়েছে।