সম্প্রতি ভারত থেকে ফিরে গিয়েছিলেন নিউজিল্যান্ড এবং সেখানেই তাঁর নমুনা পরীক্ষা করায় জানা যায় ৩২ বছরের ওই ব্যক্তি করোনাভাইরাসে সংক্রমিত।  সেই দেশের নিয়ম অনুযায়ী আক্রান্ত ব্যক্তিকে অকল্যান্ডের একটি আইসোলেশন সেন্টারে পাঠান হয়। কিন্তু সেখান থেকে সেই ব্যক্তি চম্পট দেন। অভিযোগ সোজা চলে যায় স্থানীয় একটি সুপার মার্কেটে। এই ঘটনা সামনে আসায় নিউজিল্যান্ডের স্বাস্থ্য মন্ত্রী বেজায় চটেছেন। স্বাস্থ্য বিধি ভঙ্গ করার করার তীব্র সমালোচনা করেছেন আক্রান্ত ব্যক্তির। 


নিউজিল্যান্ডের প্রথম সারির একটি দৈনিকে ওই খবর প্রকাশিত হয়েছে। বলা হয়েছে দেশে করোনাভাইরাসের আক্রান্ত সর্বশেষ ব্যক্তি ছিলেন তিনি। কিন্তু আইসোলেশন সেন্টার থেকেই তিনি চম্পট দেন। সন্ধ্যে ৬টা নাদাগ আইসোলেশন সেন্টার থেকে সকলের নজর এড়িয়ে বেরিয়ে যান। আক্রান্ত ব্যক্তির নাম এখনও প্রকাশ করা হয়নি। শুধু জানান হয়েছে গত ৩ জুলাই ভারত থেকে ফিরেছিলেন। তবে করোনা আক্রান্ত হলেও ওই ব্যক্তির শরীরে কোনও রকম লক্ষণ প্রকট হয়নি বলেও বলেও স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফ থেকে জানান হয়েছে। 

গালওয়ানে ৪ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে বাফার জোন, ড্রোন আর স্যাটেলাইটে চিনের ওপর নজর ভারতের ...

নিউজিল্যান্ডের স্বাস্থ্য মন্ত্রী ক্রিস হিপকিন্স আক্রান্ত ব্যক্তির তীব্র সমালোচনা করেছেন। তিনি বলেছেন ওই ব্যক্তি রীতিমত স্বার্থপর। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হবে। তবে তিনি এখনও জানাননি সরকারি আইসোলেশন সেন্টার থেকে কী করে ওই ব্যক্তি পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছিল। এই ঘটনাও আইসোলেশন সেন্টারের কোনও কর্মীরা জড়িয়ে রয়েছে কীনা তাও জানতে চাননি। পুরো ঘটনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। 

লকডাউনে মাত্র দেড়শো টাকায় নিজের শরীর বিক্রি করছে নাবালিকা, যোগী রাজ্য হারিয়ে যাচ্ছে শৈশব .

হিপকিন্স বলেছেন আইসোলেশন সেন্টার থেকে পালিয়ে ওই ব্যক্তি নিকটবর্তী সুপারমার্কেটে গিয়েছিলেন। সেখানে প্রায় ২০ মিনিট সময় কাটিয়ে ৭০ মিনিট পর আবার ফিরে আসেন আইসোলেশন সেন্টারে। সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে আক্রান্ত ব্যক্তি সুপার মার্কেরে বেশ কয়েক জন কর্মীর সংস্পর্শে এসেছিলেন। আর এই কারনেই সুপারমার্কেটের সমস্ত কর্মী ও নিরাপত্তা রক্ষীদের স্বেচ্ছা বন্দি থাকতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। 

সাজা পুনর্বিবেচনার আবেদন করতে অস্বীকার কুলভূষণ যাদবের, দাবি করেছে পাকিস্তান ..

নিউজিল্যান্ডের স্বাস্থ্য বিধি ভঙ্গ করে আইসোলেশন থেকে পালিয়ে সুপারমার্কেটে গিয়ে বাজার করায় অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয়েছে। আক্রান্তে ৪ বছরের জেলের পাশাপাশি চার হাজার মার্কিন ডলার জরিমানাও হতে পারে।