কোনও বিষয়ে যদি কেউ বিশেষ পারদর্শী হন তাহলে তিনি সবার প্রথমে যে জিনিসটি করবেন তা হল তাঁর সুপ্ত প্রতিভা সকলের সামনে তুলে ধরবেন। নিজের সুপ্ত প্রতিভা সকলের সামনে তুলে এনে সংবাদের শিরোনামে কে না আসতে চায়। কিন্তু কেবলমাত্র নিজে বিখ্যাত হবেন বলে, বিশ্ব রেকর্ড করবেন বলেই এই ব্যক্তি যা করলেন তাতে রীতিমতো হতবাক সকলে।

বেলজিয়ামে বাসিন্দা ৪৮ বছরের জিম্মি দে ফ্রেনে নামে এক ব্য়ক্তি কেবলমাত্র বিশ্ব রেকর্ড করবেন বলে টানা পাঁচদিন ধরে বাথরুমের কমোডে বসেই কাটিয়ে দিলেন। জিম্মি নিজেই নিজেকে চ্যালেঞ্জ করেছিলেন যে, টানা ১৬৫ ঘণ্টা তিনি টয়লেট সিটে বসে থাকবেন। সেইমতো শুরু হয়েছিল চেষ্টা, কিন্তু শুক্রবার সকালে ১১৬ ঘণ্টা অতিক্রান্ত হয়ে যাওয়ার পর তিনি অবশেষ হাল ছাড়েন। তাঁর এই অবাক করা কাণ্ড ঘটানোর পর স্বভাবতই তাঁকে ঘিরে ধরে মিডিয়া, সকলের একই প্রশ্ন যে, কেন তিনি এমন কাজ করলেন। একটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাতকারে জিম্মি জানান যে, নিজেকে নিয়ে মজা করার এই উপায়টি তিনি কোনওভাবেই হাতছাড়া করতে চাননি। তাঁর দাবি, সবাই তাঁর বিষয়ে জানার পর যেমন তাঁকে নিয়ে মজা করছেন, ঠিক তেমনই ভবিষ্যতেও তিনি এই একইভাবে সবাইকে নিয়ে মজা করবেন।

১৮৮ ফুট উঁচু থেকে নায়াগ্রা জলপ্রপাতে পড়ে গেলেন এক ব্যক্তি! কী হল তারপর

জিম্মি আরও জানান যে, যে টয়লেট সিটে তিনি বসেছিলেন, সেটি আসল নয় কৃত্রিম। তাই যখন সত্যি সত্যিই প্রকৃতির ডাক আসত তখন তিনি উঠতে পারতেন। তাঁর কথায়, কোনও এক ব্যক্তি নাকি এর আগে ১০০ ঘণ্টা টয়লেট সিটে বসেছিলেন। তার রেকর্ড ভাঙবেন বলেই তিনি এই কাজটি করেন। মাঝে মাঝে শরীর অসম্ভব ক্লান্ত লাগত তাঁর। পায়েও ব্যথা করত, কিন্তু কেবল রেকর্ড করবেন বলেই সব কষ্ট সহ্য করেছেন বলে জানান তিনি।