দেশের পাশাপাশি বিদেশেও রাম মন্দির বানানো হোক । খাস মক্কায় এই আহ্বান জানিয়েছিলেন কর্ণাটকের এক যুবক। যার জেরে তাঁকে গ্রেফতার করল সৌদির সরকার। যদিও  এই অভিযোগ  অস্বীকার করেছে অভিযুক্তের পরিবার। তাদের দাবি, ওই যুবকের ফেসবুক প্রোফাইল হ্য়াক করে এই ধরনের পোস্ট করা হয়েছে। 

বাজপেয়ীর ছবি উন্মোচনে গরহাজির মমতা, 'অবদানের' কথা মনে করালেন ক্ষুব্ধ ধনখড়

অযোধ্য়ায় এখনও গড়ে ওঠেনি রাম মন্দির। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে এবার সেখানে শুরু হবে রাম মন্দির গড়ার কাজ। কিন্তু তার আগেই সৌদি আরবে রাম মন্দির গড়ার কথা বলে বিপাকে ভারতীয় যুবক। কর্ণাটকের ওই যুবকের বিরুদ্ধে অভিযোগ, শুধু রাম মন্দির গড়ার আহ্বান জানিয়েই ক্ষান্ত হননি তিনি। উল্টে  সৌদি আরবের রাজা সলমনের বিরুদ্ধেও সোশ্যাল মিডিয়ায় আপত্তিকর মন্তব্য করেছেন। তবে ওই যুবকের পরিবারের দাবি, তাঁকে ফাঁসানো হচ্ছে।

বড়দিনের 'বড় উপহার', বাড়ির পথে পা বাড়ালেন ২৯ জন যাবজ্জ্বীবন সাজাপ্রাপ্ত বন্দি

জানা  গেছে, অভিযুক্ত ওই ভারতীয় যুবকের নাম হরিশ বাঙ্গেরা। সৌদিতে হরিশ এসি মেকানিক হিসাবে কাজ  করতে যান। আসলে তিনি কর্ণাটকের উদিপির  বাসিন্দা। হরিশের স্ত্রী সুমনা জানিয়েছেন, হরিশের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হয়েছে।  তাঁর বিরুদ্ধে আনা সমস্ত অভিযোগ একেবারেই ভিত্তিহীন। ইতিমধ্য়েই ভারতের বিদেশ মন্ত্রকের দ্বারস্থ হয়েছে হরিশের পরিবার। সৌদির  কড়া আইনের বিষয়টা মাথায় রয়েছে তাঁদের।  

রাজ্যপাল বহিরাগত, বাংলা নিয়ে না ভাবার পরামর্শ ফিরহাদের, দেখুন ভিডিও

হরিশের পরিবার জানিয়েছে, ওই পোস্টটি জানার পরই তা সোশ্য়াল ওয়াল থেকে ডিলিট করে দেন তিনি। কিন্তু তাতেও তাঁকে রেহাই দেয়নি সৌদি পুলিশ। সূত্রের খবর, সৌদিতে ইসলাম অবমাননার জন্য় মৃত্যুদণ্ডের সাজাও হতে পারে। তাই হরিশ যাতে কোনওভাবেই সাজা না পান, সেদিকে নজর রাখছে সৌদির ভারতীয় দূতাবাস। ইতিমধ্য়েই বিদেশ মন্ত্রকের তরফে শুরু হয়েছে তৎপরতা।