অলৌকিক ঘটনাই বটে। পর্বত অভিযানে গিয়ে ৫০০ ফুট নীচে পড়ে বেঁচে গেল ভারতীয় বংশোদ্ভূত এক কিশোর। কানডার বাসিন্দা বছর ষোলর গুরবাজ সিং বন্ধুদের সঙ্গে বেরিয়েছিল মাউন্ড হুড অভিযানে। ছোটবেলা থেকেই পর্ত গুরবাজকে টানে। ইতিমধ্যে পর্বত অভিযানও দক্ষতার সঙ্গে শেষ করেছে গুরবাজ। কিন্তু জীবনের নব্বইতম অভিযানে গিয়ে জীবনের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা।

 

 

১১,২৪০ ফুট উঁচু মাউন্ট হুডের শীর্ষে পৌঁছনোর জন্য অভিযান শুরু করেছিল গুররাজ। কীন্তু শীর্ষে পৌঁথনোর আগেই অসাবধানবশত ৫০০ ফুট নীচে পড়ে যায় ওই কিশোর। মাউন্ড হুডের ১০,৫০০ ফুট উঁচু থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়। দুর্গম এলাকা হওয়ায় তাকে নামিয়ে আনতে কয়েক ঘণ্টা সময় লাগে।প্রাণ বাঁচলেও পা ভেঙেছে গুরবাজের। পায়ে অস্ত্রোপচারও করতে হয়েছে তার।

আরও পড়ুন: ট্রাম্পের নির্দেশে বাগদাদে বিমানহানা, মৃত্যু হল ইরানের শীর্ষ সেনা কর্তার

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সবথেকে উঁচু পর্বত হল মাউন্ট হুড। যে জায়গা থেকে কিশোর গুররাজ পড়ে যায় সেটি 'পার্লে গেটস টু দ্য ডেভিলস কিচেন' নামে পরিচিত। এই দুর্গম জায়গা থেকে বেঁচে ফিরতে পেরে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছে গুরবাজ। আপাতত পোর্টল্যান্ড হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে তার। 

আরও পড়ুন: নাগরিকত্ব আইনের পক্ষে জনসমর্থন জোটাতে ১০ দিনের কর্মসূচি, এবার টোল ফ্রি নম্বরের সূচনা করবেন শাহ

হেলমেট থাকার কারণে মাথায় চোট লাগেনি কিশোর গুরবাজের। যদিও হেলমেটটি চৌচির হয়ে গিয়েছে তার। তবে দ্রুত সেরে উঠে মাউন্ট হুডের অসমাপ্ত অভিযান শেষ করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ এই সাহসী কিশোর।