ইতিহাস গড়লেন নরেন্দ্র মোদী, দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী হিসাবে বাহরিন-এ পা রাখলেন নরেন্দ্র মোদী। শনিবার সেদেশের মাটিতে পা রেখেই বাহরিনের রাজা হামাদ বিবন ইসা আল খালিফা-র সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক এবং আঞ্চলিক নানা বিষয়ে আলোচনা সারেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বিশেষজ্ঞদের মতে প্রথম কোনও ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী হিসাবে এটি মোদীর প্রথম বাহরিন সফর, এবং সেই কারণেই এই সফর কিন্তু অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। 

আরও পড়ুন -এখনও কাটেনি সুষমা স্বরাজের মৃত্যু শোক, তাঁর প্রয়াণে কী প্রতিক্রিয়া দিয়েছিলেন জেটলি

বাহরিনে, উপসাগরীয় অঞ্চলের প্রাচীনতম শ্রীনাথজি-র মন্দিরটির পুনর্নির্মানের আনুষ্ঠানিক সূচনারও সাক্ষী থাকবেন। প্রধানমন্ত্রীর বৈদেসিক সফরে এটি তিন নম্বর দেশ। এর আগে ফ্রান্স এবং সংযুক্ত আরব আমিরশাহীও ঘুরে এসেছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। 

আরও পড়ুন- সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে মোদী, ভূষিত হলেন সেদেশের সর্বোচ্চ অসামরিক সম্মানে

এর আগে ফ্রান্স সফরে ফরাসি রাষ্ট্রপতি ইম্যানুয়েল মাঁকর-এর সঙ্গে বৈঠক হয় মোদীর। কাশ্মীর প্রসঙ্গে কার্যত ভারতের পক্ষেই কথা বলেছেন ফ্রান্সের প্র সিডেন্ট। এরপর মোদী উড়ে যান সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে, সেখানে  আবু ধাবির ক্রাউনড প্রিন্স শেখ মহম্মদ বিন জায়েদ আল নাহয়ান-এর সঙ্গে দুদেশের মধ্যে বাণিজ্য ও সাংস্কৃতিক সম্পর্কের উন্নতির ব্যবস্থা নিয়ে আলোচনা করেন মোদী। সেখানে প্রধানমন্ত্রীকে সেদেশশের সর্বোচ্চ অসামরিক সম্মান 'অর্ডার অব জায়াদ'-এ ভূষিত করা হয়। 

বাহরিন সফর সেরে রবিবার ফের ফ্রান্সে ফিরবেন মোদী। সেখানে আয়োজিত জি ৭ সামিটে অংশ নেবেন তিনি।