সাবধান। যদি এমন কর্মটি কেউ করে থাকেন তাহলে অবিলম্বে এই অভ্যাস ত্যাগ করুন। কারণ, গাড়ি থেকে জ্বলন্ত সিগারেট বাইরে ছুঁড়ে ফেলাটা অতি আতঙ্কের। যে কোনও মুহূর্তে যে কোনও ঘটনা ঘটে যেতে পারে। অনেকবার সাবধান করা হয়েছে গাড়ির চালক থেকে আরোহীদের। কিন্তু, দুর্ভাগ্যের বিষয় কাজের কাজ কিছু হয়নি। আর্থিক জরিমানা বলবৎ করা হয়েছিল। তাও এই ধরনের অপরাধকরা লোকেদের কাছে কিছুই নয়। ফলে, গাড়ি থেকে জ্বলন্ত সিগারেট বাইরে ছুঁড়ে ফেলার চলে কোনও ভাবে লাগাম পড়াতে পারেনি অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলস সরকার। যার জন্য শুক্রবার থেকে আরও কড়া নিয়ম বলবৎ করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন- অস্ট্রেলিয়ার দাবানল কেড়েছে কোটি কোটি প্রাণ, বন্যপ্রাণীদের বাঁচাতে আকাশপথে ফেলা হল ২,২০০ কেজি সব্জি

আরও পড়ুন- জ্বলছে অস্ট্রেলিয়া, তিন মিলিয়ন ডলার দেওয়ার প্রতিশ্রুতি লিও-র

এই নতুন নিয়মে, গাড়ি থেকে জ্বলন্ত সিগারেট ছুঁড়ে ফেলাদের ১১ হাজার ডলার পর্যন্ত ফাইন দিতে হতে পারে। ভারতীয় মুদ্রায় যার অঙ্ক ৭ লক্ষ টাকার কিছুটা বেশি। একটা জ্বলন্ত সিগারেট বাট-এর জন্য ফাইনের এই বিশাল অঙ্ক  অন্য কোনও দেশে বলবৎ নেই। নিউ সাউথ ওয়েলস সরকার মনে করছে এছাড়া আর কোনও গতি নেই। কারণ, এর আগেও এই ধরনের অপরাধে লাগাম পড়াতে ৬৬০ ডলারের জরিমানা লাগু করা হয়েছিল। তাতে কাজের কাজ কিছু হয়নি। চলন্ত গাড়ি থেকে রাস্তার এদিক-সেদিকে সারাক্ষণই কেউ না কেউ জ্বলন্ত সিগারেটের বাট ছুঁড়ে ফেলেছেন। যারা ধরা পড়েছেন তারা যৎসামান্য ফাইন দিয়ে পার পেয়ে গিয়েছেন। 

নিউ সাউথ ওয়েলস গত আড়াই মাসেরও বেশি সময় ধরে ভয়াবহ দাবানলের শিকার হয়েছে। এই দাবানলের আকৃতি এতটাই বিশাল যে পরিবেশবিদদের দাবি দক্ষিণ কোরিয়া দেশটি যতটা বড়, নিউ সাউথ ওয়েলস-এ হওয়া দাবানলের আকৃতিও তেমনি। এখন বিশ্বের সবচেয়ে ভয়ঙ্করতম দাবানলগুলির একটি বলা হচ্ছে এটিকে। এহেন পরিস্থিতিতে নিউ সাউথ ওয়েলস-এ পুরোপুরি ফায়ার ব্যান লাগু করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন- টকটকে লাল সূর্য, হঠাৎ গেরুয়া-অন্ধকারাচ্ছন্ন আকাশ, তীব্র চাঞ্চল্য নিউজিল্যান্ড-এ

দাবানল এখন সামান্য হলেও নিয়ন্ত্রণের ইঙ্গিত দিচ্ছে। এই অবস্থায় যাতে পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে না যায় সে কারণে নিউ সাউথ ওয়েলস সরকার জ্বলন্ত সিগারেট যত্রতত্র ছুঁড়ে ফেলার উপরে কড়া নিয়ন্ত্রণ চাইছে। আর তার জন্য গাড়ি থেকে ছুঁড়ে ফেলা জ্বলন্ত সিগারেটেও এই বিধিনিষেধ বলেই জানিয়েছে নিউ সাউথ ওয়েলস সরকার। এমনকী এই অপরাধে যারা ধরে পড়বেন সেই গাড়ির চালকের ১০ ডেসিমিট পয়েন্টও কেটে নেওয়া হবে। আগে এটা ছিল ফাইভ ডেসিমিট পয়েন্ট। বিশেষ করে যারা শর্তসাপেক্ষ এবং লার্নার লাইসেন্সে গাড়ি চালান তাঁদের কাছে এটা কড়া হুঁশিয়ারি বলেই দাবি করেছেন নিউ সাউথ ওয়েলস-এর পুলিশ ও এমার্জেন্সি সার্ভিসের মন্ত্রী। 

এখন পর্যন্ত দাবানলে ২৫.৫ মিলিয়ন হেক্টর এলাকা পুড়ে খাক হয়ে গিয়েছে। বিলুপ্ত হয়ে গিয়েছে বহু দুর্লভ প্রজাতির পাখি থেকে শুরু করে জন্তু-জানোয়ার। দাবানল নিবাতে গিয়ে প্রাণ হারিয়েছেন ২৮ জন। নিউ সাউথ ওয়েলস সরকারের দেওয়া পরিসংখ্যানে জানা গিয়েছে ২০১৯ সালে গাড়ি থেকে জ্বলন্ত সিগারেট বাইরে ছুঁড়ে ফেলার জন্য ২০০ জনকে জরিমানা করা হয়েছিল।