করোনাকে হারিয়ে যুদ্ধে জয়ী ছিয়াত্তর বছরের এক বৃদ্ধা। কলকাতা বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন  ছিলেন তিনি। তবে এই যুদ্ধে  গাঁটের ব্যথা অর্থাৎ রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিস ঢাল হয়ে ওই বৃদ্ধাকে বাঁচাল। হার মানতে বাধ্য় হল করোনা ভাইরাস।আর তাঁকেই করোনা আক্রান্তদের সামনে রোল মডেল হিসাবে তুলে ধরতে চাইছেন চিকিৎসকেরা।

আরও পড়ুন, লকডাউনে কাজ হারিয়েছেন আইনজীবীরা, সাহায্য়ে এগিয়ে এল বার কাউন্সিল


জানা গিয়েছে, তীব্র শ্বাসকষ্ট দীর্ঘদিন ভুগছিলেনপূর্ব মেদিনীপুরের এগরার ছিয়াত্তর বছরের এক বৃদ্ধা। যা চিকিৎসা পরিভাষায় বলা হয় সিওপিডি । প্রতিদিন দুবার করে নিতে হয় ইনহেলার । পাশাপাশি তার ছিল রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিস। এরই সঙ্গে সম্প্রতি তিনি করোনা আক্রান্ত হন। এদিকে তাঁর পুরোনো রোগই করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে মুক্তি দিয়েছে বলে চিকিৎসকদের প্রাথমিক অনুমান।

আরও পড়ুন, লকডাউনে ছবি দেখে শিউরে উঠবেন আপনি, নিউটাউনের মাছ বাজারে 'শুধুই মাথা'

অপরদিকে এই রহস্য় উন্মোচন করে মাইক্রোবায়োলজিস্ট সুমন পোদ্দার বলেন,' দীর্ঘদিন এগরার ওই বাসিন্দা পুরোনো রোগের জন্য় হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন খাচ্ছিলেন। এটা তারই ফল হতে পারে। তবে গোটা বিষয়টি গবেষণা সাপেক্ষ।' অপরদিকে, বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালের সুপার তথা উপাধ্যক্ষ আশিস মান্না বলেন, '৭৬ বছরের মহিলার সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরা আমাদের কাছে একটা উদাহরণ। এই ঘটনা সাহস জুগিয়েছে। তবে তিনি কী ওষুধ খেতেন এই ধরনের কোন গবেষণালব্ধ ফল আমাদের কাছে নেই । আমরা এখনই এই ধরনের কোনও সিদ্ধান্তে আসতে পারছি না। তবে গোটা বিশ্ব জুড়ে এমন তথ্য মিলছে।' উল্লেখ্য়, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে ভারত তথা সারাপৃথিবীতেই হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ওষুধটি ব্য়বহার করা হচ্ছে।
 

 

  'হটস্পট' এলাকা থেকে আসায় প্রসুতিকে ফিরিয়ে দিল এনআরএস, চরম যন্ত্রনা নিয়ে ঘরেই প্রসব-মৃত সদ্যোজাত

করোনার কোপ এবার সেন্ট্রাল মেডিক্যাল স্টোরে, বেলেঘাটা আইডিতে ভর্তি শীর্ষ স্বাস্থ্যকর্তা

 করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্য়ু ক্যানসার রোগীর,আতঙ্ক ছড়াল রাজারহাটের হাসপাতালে