মুম্বই ক্রাইম ব্রাঞ্চের জালে শহরের পানশালার গায়িকা।  পানশালায় গান গাওয়ার আড়ালে মোবাইল-প্রসাধনী দ্রব্য দিয়ে চুরি করে হাতেখড়ি, পরে লক্ষ লক্ষ টাকার গয়না চুরি মাধ্যমেই হাত পাকে অর্চনার। কিন্তু শেষ রক্ষা হল না। বেঙ্গালুরু থেকে মুম্বই ক্রাইম ব্রাঞ্চ গ্রেফতার করেছে অর্চনাকে।

আরও পড়ুন, কৃষক আন্দোলনে ফেসবুক পেজ বন্ধে দেশজুড়ে ক্ষোভ, মোদীর মুখ বানিয়ে অভিনব প্রতিবাদ কলকাতায়


পুলিশি সূত্রে খবর, গত বছর এপ্রিল মাসে মুম্বইয়ের এনএম যোশী মার্গ থানায় অভিযোগ জানান, শপিং মলে গিয়ে ১৫ লক্ষ টাকার গয়না চুরি গিয়েছে। ওই মহিলাকে গ্রেফতারের খবর এসে পৌছেছে লালবাজারেও। লালবাজারের গোয়েন্দা আধিকারিকরা জানিয়েছেন, ২০০৫ সালে ভবানীপুরের এলগিন রোডের একটি শপিং মলে চুরি যেতেই সিসিটিভি থেকে ওই মহিলার ফুটেজ পান। সেখানেও নজর ছিল গোয়েন্দাদেরও। ফের একই জায়গায় চুরি করতে এসে গোয়ান্দা পুলিশের কাছে গ্রেফতার হয় ওই পানশালার গায়িকা।

আরও পড়ুন, Election Live Update- একুশের বাংলায় ক্ষমতা আসবে কার হাতে, কে হবেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী

জানা গিয়েছে, অর্চনার বাড়ি মধ্য কলকাতার তালতলা থানার কাছেই। সেখানে একটি পুরোনো বাড়ির দু কামরার ঘরে মা ও ভাইয়ের সঙ্গে ভাড়া থাকত সে। সেই বাড়িতেই হানা দিয়ে উদ্ধার হয় চোরাই সবকিছু। অর্চনা পানশালায় গায়িকার চাকরি পেয়েও ছাড়তে পারেনি চুরি অভ্যাস। অর্চনা বড়ুয়ার নতুন নাম হয় মুনমুন হোসেন। এত কিছু করেও লাভ হয়নি। কলকাতায় এসে শপিংমলে ফের চুরি করতে কাল হয়ে দাড়ায়। ধরা পড়ে যায় সে।