হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেই এবার সরাসরি মুখ্যমন্ত্রীকে চ্যালেঞ্জ করলেন ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং। মমতার সৌজন্যে এবার গিনেস বুকে নাম তোলার ইচ্ছা প্রকাশ করলেন এই সাংসদ।

রাজ্য় সরকার যাই বলুক না কেন জগদ্দল-শ্য়ামনগরে অশান্তির পিছনে পুলিসের উস্কানিকেই দায়ী করেছিলেন ব্য়ারাকপুরের সাংসদ। তাঁর মাথা ফাটার পিছনে সরাসরি ব্যারাকপুরের পুলিশ কমিশনারেট মনোজ ভার্মাকেই দায়ী করেছেন অর্জুন। এমনকী রাখ-ঢাক না করে মনোজ ভার্মাই তাঁর মাথায় লাঠি মেরেছে বলে দাবি করেন এই সাংসদ। যদিও পুলিশের তরফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, পুলিশ এরকম কোনও কাজ করেনি। পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের সময় ইটে মাথা ফাটতে পারে অর্জুনের। তবে এডিজি জ্ঞানবন্ত সিংয়ের কথায় আমল দিচ্ছেন না ব্য়ারাকপুরের সাংসদ। 

আরও পড়ুন :অর্জুনের বাড়ি থেকে মুখ ঢেকে কারা, সিসিটিভি ফুটেজ নিয়ে তোলপাড় রাজ্য

আরও পড়ুন :সক্রিয় রাজভবন, ভাটপাড়া কাণ্ডের জেরে ডিজি-কে তলব করলেন রাজ্যপাল

উল্টে সাংসদের মাথা ফাটার জন্য স্পিকারের কাছে চিঠি দিয়েছেন তিনি। অর্জুনের দাবি, একজন সাংসদের ওপর কীভাবে আইপিএস অফিসার লাঠি চালায়, তা জানতে চাওয়া হয়েছে স্পিকারের কাছে। নব্য বিজেপির এই সাংসদের কথায়, প্রোটোকল অনুযায়ী সাংসদের থেকে অনেক জুনিয়র পদাধিকারী একজন  আইপিএস। এদিকে , গতকালই অর্জুন ও তাঁর বিধায়ক পুত্র পবন সিংয়ের নামে থানায় এফআইআর দায়ের হয়েছে। যদিও এইসব নিয়ে তিনি ততটা ভাবিত নন বলে সাফ জানিয়ে দেন ব্য়ারাকপুরের সাংসদ। তিনি বলেন, 'দিদিকে তো আমি অনেক আগে চ্যালেঞ্জ করেছি। আমার ওপর একশো মামলা করুন। আমি চাইছি গিনেস বুকে আমার নাম উঠুক। মমতা ব্যানার্জি বিরোধীদের জব্দ করার জন্য মামলার ওপর মামলা দিয়ে যাবেন। আমি যেদিন মামলা করব, সেদিন দিদিমণিকে কেউ বাঁচাতে পারবে না। দিদিমণিকে জয়ললিতা না হলে লালুপ্রসাদ হতে হবে।'

সম্প্রতি শ্যামনগরে বিজেপি-র একটি পার্টি অফিসের দখলকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে স্থানীয় পানবাজার মোড়। খবর পেয়ে সেখানে যান বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং। সেখানেই তাঁর গাড়ি ভাঙচুর করা হয় বলে অভিযোগ। ক্রমে এই উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে কাঁকিনাড়া এলাকায়। বিজেপি এবং তৃণমূল সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। অর্জুন সিংয়ের নেতৃত্বে রাস্তা অবরোধ করে বিজেপি। জানা গিয়েছে, অবরোধ তোলার জন্য অর্জুন সিংকে অনুরোধ করেন মনোজ ভার্মা। কিন্তু তা শোনেননি বিজেপি সমর্থকরা। এর পরেই লাঠিচার্জ শুরু করে পুলিশ। পাল্টা ইটবৃষ্টি শুরু করে বিজেপি সমর্থকরা। পুলিশের দাবি, এর মাঝে পড়ে যান ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ। মাথা ফাটে অর্জুনের। তাঁকে দ্রুত উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।